দলের মধ্যে আত্মসমালোচনার প্রয়োজন! দলীয় সাংসদের মন্তব্যে তোলপাড় রাজ্য বিজেপি

একুশের বিধানসভা ভোটের পর থেকে একের পর এক নির্বাচনে ভরাডুবি হয়েছে বিজেপির। বিধানসভায় একমাত্র ও প্রধান বিরোধী দল হয়েও কিছু ক্ষেত্রে বামেদের থেকেও পিছিয়ে পড়ছে বিজেপি

দলের সর্বভারতীয় সভাপতি জেপি নাড্ডার বঙ্গ সফরের রেশ কাটতে না কাটতেই ফের বিদ্রোহের সুর রাজ্য বিজেপির অন্দরে।এবার “বেসুরো” রানাঘাটের বিজেপি সাংসদ জগন্নাথ সরকার। গতকাল, রবিবার দিল্লি থেকেই জগন্নাথ সরকারের একটি মন্তব্যকে কেন্দ্র করে শোরগোল পড়ে গিয়েছে। তিনি বলেন, “দলের মধ্যে আত্মসমালোচনা করা অত্যন্ত প্রয়োজন। সকলের মতামত নিয়ে সার্বিকভাবে দলীয় সাংগঠনিক সিদ্ধান্ত নেওয়া জরুরি। বিজেপির সমস্ত কর্মীই যাতে নিজের যোগ্যতা অনুসারে সাংগঠনিক দায়িত্ব পান, তা সুনিশ্চিত করতে হবে।”

প্রসঙ্গত, একুশের বিধানসভা ভোটের পর থেকে একের পর
এক নির্বাচনে ভরাডুবি হয়েছে বিজেপির। বিধানসভায় একমাত্র ও প্রধান বিরোধী দল হয়েও কিছু ক্ষেত্রে বামেদের থেকেও পিছিয়ে পড়ছে বিজেপি। অকারণে একপেশে তৃণমূলের সমালোচনা মানুষ গ্রহণ করেনি। একের পর এক নেতা-কর্মী, সাংসদ, বিধায়ক দল ছেড়েছেন। আদি-নব্য দ্বন্দ্বে জর্জরিত গেরুয়া শিবির। মুষল পর্ব অব্যাহত। বিজেপির অনেক নেতা-কর্মীই নিষ্ক্রিয়ও হয়ে গিয়েছেন। সেই প্রেক্ষিতে দাঁড়িয়ে রানাঘাটের বিজেপি সাংসদের এনন মন্তব্য খুব তাৎপর্যপূর্ণ বলেই মনে করছে রাজনৈতিক মহল।

আরও পড়ুন:CBI-এর যুগ্ম অধিকর্তা বদল! সরলেন পঙ্কজ শ্রীবাস্তব

 

 

Previous articleRishabh Pant: ম‍্যাচ হেরে দলের স্পিনারদের কাঠগড়ায় তুললেন পন্থ