বগটুই গণহত্যাকাণ্ড: প্রতিশোধ নিতেই পুলিশ পাঠায়নি আনারুল, চার্জশিটে দাবি সিবিআইয়ের

কেন্দ্রীয় তদন্তকারী সংস্থা তাদের চার্জশিটে দাবি করেছে, আগুন লাগার পর গ্রামের বাসিন্দারা ফোন করে জানিয়ে ছিলেন আনারুলকে, তখন তিনি জানান পুলিশ যাবে না। প্রতিশোধ নেওয়া হচ্ছে

বীরভূমের বগটুইয়ের অগ্নিসংযোগে নৃশংস গণহত্যাকাণ্ডে মৃত্যু হয়েছিল ১১ জনের। সেই ঘটনার মাস্টারমাইন্ড আনারুল হোসেনের ভূমিকা ঠিক কী ছিল, তা নিয়ে বিভিন্ন মহলে প্রশ্ন উঠেছে। তারই মধ্যে আদালতে প্রথম চার্জশিট পেশ করল CBI. জানা গিয়েছে, কেন্দ্রীয় তদন্তকারী সংস্থা তাদের চার্জশিটে দাবি করেছে, আগুন লাগার পর গ্রামের বাসিন্দারা ফোন করে জানিয়ে ছিলেন আনারুলকে, তখন তিনি জানান পুলিশ যাবে না। প্রতিশোধ নেওয়া হচ্ছে।

ঠিক কী বলেছিলেন আনারুল? তিনি নাকি বলেছিলেন, “আমরা ভাদু শেখের খুনের প্রতিশোধ নিচ্ছি। ওরা মেরেছে। কিছু করতে হবে না এখন। এখন এক ঘণ্টা পুলিশ যাবে না।”

সিবিআই চার্জশিটে আরও জানিয়েছে, গত ২১ মার্চ ঘটনার দিন রাতে যখন বগটুইয়ে একের পর এক বাড়ি জ্বলছে, তখন সোনা শেখের বাড়ি (যে বাড়িতে একসঙ্গে ৭ জনের অগ্নিদগ্ধ হয়ে মৃত্যু হয়েছিল) থেকে ফোন গিয়েছিল রামপুরহাট থানায়। কিন্তু পুলিশ দ্রুত পদক্ষেপ করেনি। দমকলও আসতে দেরি করে।


Previous articleরাজ্যপালকে বিল আটকে রাখতে বলেছে বিজেপি, বিধানসভায় নিন্দা প্রস্তাব তৃণমূলের