ভুটানের সীমান্তের ১০ কিলোমিটারের মধ্যে দু-দুটো গ্রাম তৈরি করে ফেলেছে চিন!

প্রাথমিক ভাবে মনে করা হচ্ছে, চিনের রোড কনস্ট্রাকশনে বাধা দিতে ভারতীয় সেনা যখন ব্যস্ত ছিল, তখনই অন্য দিকে নির্মাণ কাজ শুরু করে দেয় লাল ফৌজ।

ভুটানের ভিতরেই পাশাপাশি দুটো প্রকাণ্ড গ্রাম গড়ে তুলেছে চিন। আর এখানে ১৬৬টি বিল্ডিং তৈরি হয়েছে। গোটা এলাকাটি চওড়া উন্নত রাস্তা দিয়ে সংযুক্ত। সম্প্রতি প্রকাশিত এক উপগ্রহ চিত্রে এই চাঞ্চল্যকর তথ্য সামনে এসেছে। আর যেখানে এই গ্রাম গড়ে উঠেছে সেখান থেকে মাত্র ১০ কিলোমিটার দূরে অবস্থিত ডোকলাম, যে এলাকা কেন্দ্র করে ২০১৭ সালে ভারত আর চিনের মধ্যে উত্তেজনা তৈরি হয়েছিল। প্রাথমিক ভাবে মনে করা হচ্ছে, চিনের রোড কনস্ট্রাকশনে বাধা দিতে ভারতীয় সেনা যখন ব্যস্ত ছিল, তখনই অন্য দিকে নির্মাণ কাজ শুরু করে দেয় লাল ফৌজ।

আরও পড়ুন- কর্তব্যরত পুলিশকর্মীকে পিষে দিল পিকআপ ভ্যান, পলাতক অভিযুক্ত
ভুটানের ডোকলাম মালভূমিতে ২০১৭ সালে দীর্ঘদিন মুখোমুখি দাঁড়িয়েছিল ভারত ও চিনের সেনা। ভুটানের এলাকায় চিনের নয়া নির্মাণকার্যের চিত্র থেকে ভারতীয় বিশেষজ্ঞদের আশঙ্কা, ফের ডোকলামের ঝাম্পেরি শৈলশিরায় পৌঁছনোর চেষ্টা করছে চিনা সেনা। ওই শৈলশিরা থেকে সরাসরি ভারতের ‘শিলিগুড়ি করিডর’-এর উপরে নজর রাখা যায়। ওই করিডরের মাধ্যমে উত্তর-পূর্বের রাজ্যগুলির সঙ্গে যোগাযোগ রয়েছে বাকি দেশের।
উপগ্রহ চিত্রে দেখা যাচ্ছে, ডোকলামের ৯ কিলোমিটার পূর্বে আমো চু নদীর তীরে একটি গ্রাম তৈরি করেছে চিনা সেনা। সেখানে প্রতি বাড়িতেই গাড়ি দাঁড়িয়ে থাকতে দেখা যাচ্ছে। অর্থাৎ ওই গ্রামে পুরোপুরি বসবাস শুরু করেছেন চিনারা। সে দেশের সেনার তৈরি এই গ্রামের নাম পাংডা। ওই অঞ্চলে আরও দু’টি গ্রাম ও একটি সব ঋতুতে যাতায়াত করার যোগ্য সড়কও ধরা পড়েছে উপগ্রহ চিত্রে।

 

 

Previous articleকমনওয়েলথ গেমসে ভারত-পাকিস্তান ম‍্যাচ ঘিরে উত্তেজনা তুঙ্গে, বিক্রি সব টিকিট