অর্পিতার ফ্ল্যাটের বিপুল নগদের সঙ্গে যোগ পোশাক সংস্থার? হাওয়ালার আশঙ্কা ইডির

অর্পিতার বাড়ি থেকে প্রায় ২২ কোটি টাকা নগদ উদ্ধার হয়েছে। সঙ্গে বিপুল পরিমাণ গয়না ও বিদেশী মুদ্রা উদ্ধার করেছে এনফোর্সমেন্ট ডিরেক্টরেট (ED)। কেন্দ্রীয় তদন্তকারী সংস্থার আশঙ্কা, হাওয়ালার মাধ্যমে বিপুল টাকা বাংলাদেশে পাঠানো হয়েছে।

এসএসসি (SSC) নিয়োগ মামলার তদন্তে নেমে অভিনেত্রী-মডেল অর্পিতা মুখোপাধ্যায়ের (Arpita Mukherjee) ফ্ল্য়াট থেকে যে বিপুল নগদ উদ্ধার হয়েছে তার সঙ্গে পোশাক বিপণি সংস্থার যোগ রয়েছে বলে মনে করছে ইডি। এদের হয়ে মডেলিং (Modeling) করতেন অর্পিতা। শুধু তাই নয়, ইডির (ED) আশঙ্কা, ওই সংস্থার মাধ্যমে হাওয়ালায় টাকা সীমান্ত পেরিয়েছে।

অর্পিতার বাড়ি থেকে প্রায় ২২ কোটি টাকা নগদ উদ্ধার হয়েছে। সঙ্গে বিপুল পরিমাণ গয়না ও বিদেশী মুদ্রা উদ্ধার করেছে এনফোর্সমেন্ট ডিরেক্টরেট (ED)। কেন্দ্রীয় তদন্তকারী সংস্থার আশঙ্কা, হাওয়ালার মাধ্যমে বিপুল টাকা বাংলাদেশে পাঠানো হয়েছে। ইডি সূত্রে খবর, ওই ব্যবসায়ীক সংস্থাকে চিঠি পাঠাচ্ছে ইডি। ইডির নজরে রয়েছে একটি টেক্সটাইল কোম্পানি। ওই কোম্পানিই হাওয়ালার মাধ্যমে বাংলাদেশে পাঠিয়েছে বলে অভিযোগ। তাদের বারাসত ও গড়িয়াহাটে বিপণি রয়েছে। সেই সংস্থাকেই নোটিশ পাঠাচ্ছে ইডি। তদন্তকারীর অভিযোগ, অর্পিতার বাড়ি থেকে উদ্ধার হওয়া প্রায় ২২ কোটি টাকার ছাড়াও আরও লেনদেন হয়েছে। সেই টাকা গেল কোথায়? সেটাই ওই কোম্পানির ডিরেক্টরদের কাছেও জানতে চাইবে ইডি।

টানা ২৭ ঘণ্টা জেরার পর গ্রেফতার করা হয়েছে প্রাক্তন শিক্ষামন্ত্রী পার্থ চট্টোপাধ্যায়কে (Partha Chatterjee)। জিজ্ঞাসাবাদের পর গ্রেফতার করা হয়েছে পার্থ-ঘনিষ্ঠ অর্পিতা মুখোপাধ্য়ায়কেও। তাঁর বাড়ি থেকে উদ্ধার হয়েছে বিপুল নগদ। তদন্ত এগোতেই এখন হাওয়ালার আশঙ্কাও উড়িয়ে দিচ্ছে না ইডি।


Previous articleআজই আইএসসি দ্বাদশের ফলপ্রকাশ, কীভাবে জানা যাবে রেজাল্ট?