মহালয়ার দিন রাজ্যে আসছেন অমিত শাহ, জানেনই না দিলীপ ঘোষ

ফের বঙ্গ বিজেপিতে কোন্দল প্রকাশ্যে। কেন্দ্রীয় নেতৃত্ব এসে যতই বঙ্গের গেরুয়া শিবিরকে ট্রেনিং দিক না কেন দলীয় দ্বন্দ্ব মেটাতে অসমর্থ সুনীল বনসলও। তা ‘কার্যত’ স্বীকারও করেছে বিজেপির শীর্ষ নেতৃত্ব। ফের সুকান্ত -দিলীপের দ্বন্দ প্রকাশ্যে।

আরও পড়ুন: মোদি জমানায় টাকার পতনের নয়া রেকর্ড! ডলারের দাম ছাড়িয়ে গেল ৮১ টাকা

বিজেপির রাজ্য সভাপতি সুকান্ত মজুমদার এদিন জানান, মহালয়ার দিন রাজ্যে আসছেন কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ। বেশ কয়েকটি দুর্গাপুজোর উদ্বোধন করবেন তিনি। এছাড়াও একাধিক কর্মসূচি রয়েছে তাঁর। মনে করা হচ্ছে জনসংযোগও বাড়াতে শারদোৎসবকে বেছে নিয়েছেন কেন্দ্রের শীর্ষ বিজেপি নেতারা। কিন্তু স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর বঙ্গে আসার কথা জানেনই না বিজেপির সর্বভারতীয় সহ সভাপতি দিলীপ ঘোষ। এ প্রসঙ্গে সাংবাদিকদের প্রশ্নের উত্তরে তিনি বলেন, “আমার জানা নেই”।
এ প্রসঙ্গে তৃণমূল সাংসদ শান্তনু সেন বলেন,”দিলীপ যে তাঁর দলে কতটা কোণঠাসা তার জন্য আমি গভীরভাবে সমবেদনা জানাচ্ছি । বিজেপির দৈনতা যে কোন পর্যায়ে পৌঁছেছে, যে দিলীপ ঘোষ, সুকান্ত মজুমদার, শুভেন্দু অধিকারী তিনজন তিনদিকে টানছেন দলটাকে। সেজন্যই বর্ষীয়ান নেতা তথাগত রায় বলছেন, এই মনোভাব নিয়ে তৃণমূলের সঙ্গে লড়াই করা সম্ভব নয়। এমনকি বিজেপি বাঁচাও কমিটি তৈরির কথা বলছেন।”

প্রসঙ্গত, ২১ এর বিধানসভা নির্বাচনে পর্যুদস্ত হওয়ার পর থেকে বঙ্গ বিজেপির জনবিচ্ছিন্নতা যেন কাটছেই না। জনসংযোগ বাড়াতে শারদোৎসবকে সামনে রেখে হেভিওয়েট নেতাদের বাংলায় নিয়ে আসার পরিকল্পনা করেছে গেরুয়া শিবির। ইতিমধ্যেই পঞ্চায়েত ভোটকে পাখির চোখ করে রাজ্যে এসে পৌঁছেছেন কেন্দ্রীয় শিক্ষামন্ত্রী ধর্মেন্দ্র প্রধান, বিজেপি নেতা মিঠুন চক্রবর্তী। বিজেপির দলীয় কর্মীদের চাঙ্গা করতে একাধিক কর্মসূচি রয়েছে তাঁদের। তবে তা করেও কি গেরুয়া শিবিরের অন্দরের কোন্দল মেটানো যাবে?

Previous articleফের বাড়ছে দুধ- দইয়ের দাম! চিন্তার ভাঁজ মধ্যবিত্তের কপালে