রাজ্যের আইনশৃঙ্খলা নিয়ে ফের সরব ধনকড়, পাল্টা তোপ কুণালের

রাজ্যের রাজ্যপাল হিসেবে দায়িত্ব নিয়ে সরকারের সঙ্গে লাগাতার সংঘাত পর্ব জারি রেখে বর্তমানে উপরাষ্ট্রপতি পদে বসেছেন জগদীপ ধনকড়(Jagdeep Dhankar)। তবে ‘রাজনৈতিক পক্ষপাত দুষ্ট’ অভিযোগে ডুবে থাকা ধনকড়ের সে ‘কালি’ মুছল না। উপরাষ্ট্রপতি(Vice President) পদে বসেও অতীতের চেনা অঙ্কে আবারও রাজ্যের সমালোচনায় সরব হলেন বঙ্গের প্রাক্তন রাজ্যপাল। প্রশ্ন তুললেন বাংলার আইন-শৃঙ্খলা পরিস্থিতি নিয়ে। অবশ্য তাঁর অভিযোগের পাল্টা জবাব দিতে কসুর করল না তৃণমূল।

বুধবার দিল্লি আম্বেদকর ভবনের অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখার সময় পশ্চিমবঙ্গের আইনশৃঙ্খলা নিয়ে প্রশ্ন তোলেন উপরাষ্ট্রপতি জগদীপ ধনকড়। তিনি বলেন, তিন বছর ধরে আমি পশ্চিমবঙ্গের রাজ্যপাল হিসেবে দায়িত্ব পালন করেছি। এরপরই রাজ্যের সাম্প্রদায়িক এবং রাজনৈতিক হিংসার কথা তুলে ধরেন তিনি। এবং বলেন, “আইনের শাসনের উপর একজন শাসকের শাসন বিশ্বের যে কোনও প্রান্তে পরিস্থিতির অবনতি ঘটাতে পারে।” একই সঙ্গে মানবাধিকারের প্রশ্নেও সওয়াল করেন ধনকড়। দেশের উপরাষ্ট্রপতি স্পষ্ট করে সরাসরি কিছু না বললেও রাজনৈতিক মহলের দাবি, সম্প্রতি পশ্চিমবঙ্গের ঘটে যাওয়া মোমিনপুর গোষ্ঠী সংঘর্ষের ইস্যুতেই নাম না পড়ে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের সরকারকে একহাত নিয়েছেন তিনি। প্রশ্ন তুলেছেন বাংলার আইনশৃঙ্খলা নিয়ে।

অবশ্য উপরাষ্ট্রপতি জগদীপ ধনকড়ের এহেন মন্তব্যের পাল্টা তোপ দাগতে ছাড়েনি তৃণমূল। সংবাদ মাধ্যমের মুখোমুখি হয়ে এ প্রসঙ্গে তৃণমূল মুখপাত্র কুণাল ঘোষ বলেন, ঘুম ভাঙার পর থেকে টুইট করা ওনার চিরদিনের সমস্যা। তবে উপরাষ্ট্রপতি পদে থেকে রাজনৈতিক নিরপেক্ষতা রাখা উচিত। সেগুলো যদি উনি ভুলে যেতে শুরু করেন সেটা তো সমস্যার। পাশাপাশি তৃণমূল নেতা তাপস রায় এ প্রসঙ্গে বলেন, “একটা বিষয় দেখে বেশ ভালো লাগছে যে উনি উপরাষ্ট্রপ্রতি পদে বসলেও বাংলাকে ভোলেননি। এখনো শয়নে স্বপনে বাংলার কথা ভেবে চলেছেন।”

Previous articleমোমিনপুরকাণ্ডে হাই কোর্টের নির্দেশে SIT গঠন, স্যোশাল মিডিয়ায় উস্কানিমূলক পোস্টে কড়া ব্যবস্থা: বিনীত