নিয়োগ দুর্নীতিতে কার্যত পরিবারতন্ত্র কায়েম করেছিলেন পার্থ-মানিক! তথ্য-সহ দাবি ইডির

পার্থ চট্টোপাধ্যায়ের জামাইয়ের কাছে ইডির তদন্তকারীরা জানতে চান, পিংলায় স্কুল নির্মাণের এই বিপুল টাকার উৎস কী? প্রথমে তিনি বিষয়টি এড়িয়ে যাওয়ার চেষ্টা করেন। তখন তাঁর শ্বশুর তথা প্রাক্তন শিক্ষামন্ত্রীর সঙ্গে একটি "চ্যাট" তুলে ধরেন তদন্তকারীরা

টেটে প্রাথমিক শিক্ষক এবং এসএসসি নিয়োগ দুর্নীতি মামলায় প্রাক্তন শিক্ষামন্ত্রী পার্থ চট্টোপাধ্যায় ও মানিক ভট্টাচার্য-এর বিরুদ্ধে আদালতে চাঞ্চল্যকর দাবি করেছে ইডি। কেন্দ্রীয় তদন্তকারী সংস্থার দাবি, পার্থ-মানিকের পরিবারের সদস্যরাও এই দুর্নীতিকাণ্ডে সরাসরি যুক্ত। দুর্নীতিতে কার্যত পরিবারতন্ত্র কায়েম করেছিলেন এই দু’জন। পরিবারের সদস্যদের মধ্যে প্রায় ৭০ কোটি টাকা এভাবে “বিনিয়োগ” করা হয়েছে।

গতকাল, বৃহস্পতিবার ১৪ দিনের জেল হেফাজত শেষে ফের ইডির বিশেষ আদালতে তোলা হয়েছিল মানিককে। তাঁর জামিনের বিরোধিতা করে ইডির আইনজীবী ফিরোজ এডুলজি ও ভাস্কর বন্দ্যোপাধ্যায় আদালতকে বলেন, ২০১৪ সালে প্রাইমারি টেট পরীক্ষায় অকৃতকার্য হয়েও ৩২৫ জন বিভিন্ন স্কুলে নিয়োগ পান। কত টাকার বিনিময়ে এবং কীভাবে তাঁরা চাকরি পেলেন, তা তদন্ত করে দেখা হচ্ছে।

বিপুল পরিমাণ টাকা কোথায় লুকিয়ে রাখা রয়েছে, সে বিষয়ে বলতে গিয়েই আসে মানিকের জামাইয়ের প্রসঙ্গ। ইডির আরেক আইনজীবী অভিজিৎ ভদ্র বলেন, চাকরি বিক্রির টাকা গচ্ছিত রাখার জন্য মানিকের জামাইয়ের অ্যাকাউন্ট ব্যবহার করা হয়ে থাকতে পারে। কেবল জামাই নন, তাঁর বেয়াই মেয়ের শ্বশুর ও এক ভাইয়ের ভূমিকা খতিয়ে দেখা হচ্ছে। তাঁদের প্রত্যেকের অ্যাকাউন্টে নিয়োগ দুর্নীতির টাকা ঢুকেছে। এরকম আটটি অ্যাকাউন্টের খোঁজ পেয়েছে ইডি। এভাবে চাকরি পাওয়া ৩২৫ জনের মধ্যে কয়েকজনের বয়ান রেকর্ড করা হয়েছে। ইডির আইনজীবীরা আদালতে নিয়োগের একটি তালিকা দেখিয়ে বলেন, বিভিন্ন ডিএলএড কলেজে অফলাইনে ভর্তি করিয়ে ২০ কোটি টাকা পেয়েছেন মানিক।

অন্যদিকে, বুধবার পার্থ চট্টোপাধ্যায়ের জামাইয়ের কাছে ইডির তদন্তকারীরা জানতে চান, পিংলায় স্কুল নির্মাণের এই বিপুল টাকার উৎস কী? প্রথমে তিনি বিষয়টি এড়িয়ে যাওয়ার চেষ্টা করেন। তখন তাঁর শ্বশুর তথা প্রাক্তন শিক্ষামন্ত্রীর সঙ্গে একটি “চ্যাট” তুলে ধরেন তদন্তকারীরা। শেষ পর্যন্ত তিনি স্বীকার করে নেন, স্কুল করার জন্য নগদে ৫০ কোটি টাকা তাঁর কাছে পাঠিয়েছিলেন তাঁর শ্বশুর পার্থ চট্টোপাধ্যায়। তবে পার্থ চট্টোপাধ্যায় সেই টাকা কোথা থেকে পেয়েছিলেন, সে বিষয়ে তাঁর কিছু জানা নেই।

আরও পড়ুন- গল্ফগ্রিনে প্রযোজকের রহস্যমৃ*ত্যু! প্রোডাকশন হাউসের ভিতরে উদ্ধার ঝুলন্ত দেহ

 

Previous articleগল্ফগ্রিনে প্রযোজকের রহস্যমৃ*ত্যু! প্রোডাকশন হাউসের ভিতরে উদ্ধার ঝুলন্ত দেহ