সব ভারতীয় ‘হিন্দু’ , সবার ডিএনএ এক: মন্তব্য মোহন ভাগবতের

সব ভারতীয় ‘হিন্দু’ ৷ শুধু তাই নয়, সব ভারতীয়র ডিএনএ এক । ফের দাবি করলেন আরএসএস প্রধান মোহন ভাগবত ৷ মঙ্গলবার ছত্তিশগড়ের সুরগুজা জেলার অম্বিকাপুরে রাষ্ট্রীয় স্বয়ং সেবক সঙ্ঘের একটি অনুষ্ঠানে তিনি এই ঘোষণা করেন ৷ দেশে কারও ধর্মীয় আচারঅনুষ্ঠানের পদ্ধতি বদলানোর কোনও প্রয়োজন নেই বলে মন্তব্য করেছেন ভাগবত ৷

ভারতের ‘বৈচিত্রের মধ্যে ঐক্য’ (Unity in Diversity) একটা বহু পুরনো চিন্তাভাবনা ৷ হিন্দুত্বই একমাত্র চিন্তাধারা, যে সবাইকে গ্রহণ করে, বক্তৃতায় উল্লেখ করেন মোহন ভাগবত (RSS chief Mohan Bhagwat) ৷ তিনি আরও বলেন, “আমরা ১৯২৫ সাল (আরএসএসের প্রতিষ্ঠার সময়) থেকে জানিয়ে আসছি ভারতে যাঁরা বাস করছেন তাঁরা প্রত্যেকে হিন্দু ৷ বহু মানুষ দেশকে ‘মাতৃভূমি’ হিসেবে দেখেন ৷ বৈচিত্রের মধ্যে ঐক্য- এই ভাবধারাকে আশ্রয় করে অনেকে দেশে বাস করতে চান ৷ তাই অনেকে ধর্ম, জাত, বিশ্বাস, ভাষা, খাদ্যাভ্যাস নির্বিশেষে এবং তাঁরা যে আদর্শে অনুসরণ করেন, সব মিলিয়ে তাঁরা হিন্দুই ৷”
হিন্দুত্বের আদর্শ বৈচিত্রকে স্বীকৃতি দেয় এবং মানুষের মধ্যে ঐক্যে বিশ্বাসী ৷ সারা দুনিয়ায় হিন্দুত্বই একমাত্র হাজার হাজার বছর ধরে বৈচিত্রকে ঐক্যবদ্ধ করেছে ৷ এটা সত্যি এবং দৃঢ়তার সঙ্গে আপনাদের এটা বলতে হবে ৷ এর উপর ভিত্তি করেই আমরা এক হতে পারি ৷ সঙ্ঘের কাজ প্রত্যেক নাগরিক এবং দেশের জাতীয় চরিত্র গঠন করা ৷ এটাই মানুষের মধ্যে একতা আনবে”, বলেন ভাগবত ৷

তিনি জানান, সব ভারতীয়দের ডিএনএ-র উৎস এক পূর্বসূরির থেকে ৷ তাই বৈচিত্র থাকলেও সবাই এক ৷ প্রত্যেক ভারতীয় ৪০ হাজার বছরের পুরনো ‘অখণ্ড ভারত’-এর অংশ ৷ তাদের মধ্যে একটি সাধারণ ডিএনএ রয়েছে (Akhand Bharat has common DNA) ৷ পূর্বসূরিদের সম্পর্কে তাঁর মত, “তাঁদের থেকে আমরা শিখেছি, প্রত্যেকের তাঁদের নিজের নিজের বিশ্বাস এবং আচার নিয়ম ধরে রাখা উচিত ৷ অন্যের বিশ্বাসকে রূপান্তর করার চেষ্টা ঠিক নয় ৷”

Previous articleপরিনত হার্দিক, ক্রিকেটের ছোট ফর্ম‍্যাটে দায়িত্ব নিতে কী তৈরি টিম ইন্ডিয়ার তারকা অলরাউন্ডার?