সত্যেন্দ্রর বডি ম্যাসাজ করছিল নিজের মেয়েকে ধর্ষ*ণে অভিযুক্ত! বিস্ফোরক বিজেপি মুখপাত্র

বিজেপির অভিযোগ, তিহার জেলে সত্যেন্দ্র জৈনের সঙ্গে ভিডিওতে যে ব্যক্তিকে দেখা গিয়েছে, তার নাম রিঙ্কু। নিজের মেয়েকে ধর্ষণের অভিযোগে পকসো মামলায় তিহার জেলে বন্দি। বিজেপির মুখপাত্র শেহজাদ পুনাওয়ালার অভিযোগ, "ধর্ষণে অভিযুক্ত রিঙ্কু সত্যেন্দ্র জৈনের পায়ে তেল মালিশ করছিল। পকসো আইনে তার বিরুদ্ধে মামলা রুজু রয়েছে।

তিহার জেলে (Tihar Jail) বন্দি দিল্লির মন্ত্রী সত্যেন্দ্র জৈনের (Satyendar Jain) বডি ম্যাসাজের (Body Massage) ভাইরাল ভিডিও ঘিরে তোলপাড় দেশ। এর মধ্যেই সামনে এল আরেক চাঞ্চল্যকর তথ্য। ভিডিওতে যে ব্যক্তিকে আম আদমি পার্টির নেতার (Aam Aadmi Party) পায়ে তেল মালিশ করতে দেখা গিয়েছিল, সে কোনও ফিজিওথেরাপিস্টই (physiotherapist) নয়। ধর্ষণের অভিযোগে তিহার জেলেই বন্দি সে। নিজের মেয়েকেই ধর্ষণ করার অপরাধে জেল খাটছে সে। আর এমন খবর প্রকাশ্যে আসতেই বিভিন্ন মহল থেকে সমালোচনার ঝড় ওঠে। পায়ে মালিশ করে সত্যেন্দ্র যতটা বিতর্কের জন্ম দিয়েছিলেন তাঁর থেকে কয়েকগুণ বেশি ফোকাস পেয়ে লাইমলাইটে বন্দি ধ*র্ষক।

বিজেপির অভিযোগ, তিহার জেলে সত্যেন্দ্র জৈনের সঙ্গে ভিডিওতে যে ব্যক্তিকে দেখা গিয়েছে, তার নাম রিঙ্কু (Rinku)। নিজের মেয়েকে ধর্ষ*ণের অভিযোগে পকসো মামলায় তিহার জেলে বন্দি। বিজেপির মুখপাত্র শেহজাদ পুনাওয়ালার (Sehzad Punawala) অভিযোগ, “ধর্ষ*ণে অভিযুক্ত রিঙ্কু সত্যেন্দ্র জৈনের পায়ে তেল মালিশ করছিল। পকসো (Pocso) আইনে তার বিরুদ্ধে মামলা রুজু রয়েছে। নিজের নাবালিকা মেয়েকে ধর্ষণের অভিযোগে জেলবন্দি সে। সে কোনও ফিজিওথেরাপিস্ট নয়। আমরা বিষয়টিতে হতভম্ব! অবিলম্বে কেজরিওয়ালকে এর উত্তর দিতে হবে। এরপরই তিনি প্রশ্ন তোলেন কেন একজন ধর্ষণে অভিযুক্ত ব্যক্তিকে ফিজিওথেরাপিস্ট বলা হল? তার যথাযথ উত্তর দিতে হবে।

প্রসঙ্গত, সম্প্রতি তিহার জেলে সত্যেন্দ্র জৈনের বডি ম্যাসাজের একটি ভিডিয়ো প্রকাশ্যে এসেছে। ভিডিয়োটিতে দেখা যাচ্ছে, মন্ত্রী সত্যেন্দ্র জৈন তিহার জেলে নিজের সেলে টি শার্ট ও পায়জামা পরে শুয়ে রয়েছেন এবং একজন তাঁর মাথা থেকে পা ম্যাসাজ করে দিচ্ছেন। যদিও ভিডিয়োর সত্যতা যাচাই করেনি এখন বিশ্ববাংলা সংবাদ। তবে বিজেপি নেতা শেহজাদ ভিডিয়োটি শেয়ার করেছেন এবং জেলের ভিতর আপ মন্ত্রীকে ভিআইপি পরিষেবা (VIP Service) দেওয়া হচ্ছে অভিযোগ তুলে কড়া ভাষায় অরবিন্দ কেজরীওয়ালকে (Aravind Kejriwal) তোপ দেগেছেন। আপ-এর তরফে এই অভিযোগ ‘মিথ্যা ও ভিত্তিহীন’ দাবি জানিয়ে সত্যেন্দ্র জৈনকে দেওয়া ডাক্তারের একটি প্রেসক্রিপশন (Prescription) পেশ করা হয়। যেখানে নিয়মিতভাবে সত্যেন্দ্র জৈনকে ফিজিওথেরাপি এবং শক্ত গদিতে ঘুমোনোর পরামর্শের কথা উল্লেখ রয়েছে।

কিন্তু ফিজিওথেরাপির নামে অভিযুক্ত ধর্ষ*কের পরিচয় সামনে আসতেই ময়দানে নেমেছে বিজেপি সহ বিরোধীরা। দিল্লির মন্ত্রীর এমন আচরণে মুখ পুড়েছে আম আদমি পার্টিরও। তবে ম্যাসাজ বিতর্ক যে এত সহজে ধামাচাপা পড়বে না তা দিনের আলোর মতো পরিষ্কার।

Previous articleটি-শার্টে রামধনু, মার্কিন সাংবাদিককে স্টেডিয়ামে খেলা দেখতে বাধা! ক্ষমা প্রার্থনা ফিফার