হারের ধাক্কায় একসঙ্গে খেতেও নামলেন না আর্জেন্টিনার ফুটবলাররা!

আর্জেন্টিনাকে হারিয়ে বিরাট জয় পেয়েছে সৌদি আরব। জয়ের উল্লাসে মেতেছে সৌদির ফুটবলাররা। অন্যদিকে সৌদির কাছে হার মানতে পারেনি মেসির দল। দুঃস্বপ্নেও এই হার কল্পনা করতে পারেনি তারা। হারের ধাক্কায় ভেঙে পড়েছে গোটা দল। একসঙ্গে খাওয়া তো দূর ম্যাচ শেষে একে অন্যের সঙ্গে ঠিকমত কথাও বলছেন না আর্জেন্টিনার ফুটবলাররা।

আরও পড়ুন:মেসিদের হারিয়ে বিশ্বকাপে ইতিহাস রচনা, জাতীয় ছুটি ঘোষণা সৌদির রাজার

মঙ্গলবার সৌদি আরবের কাছে আর্জেন্টিনার হারের পর থমথমে হয়ে পড়ে গোটা স্টেডেয়াম। এদিন কাজ করেনি মেসি ‘ম্যাজিক’। আর্জেন্টিনার সংবাদপত্র ‘ক্ল্যারিন’ জানিয়েছে, হারের পরে স্টেডিয়ামের টানেল দিয়ে ঢোকার সময় আর্জেন্টিনার ফুটবলাররা একে অপরের সঙ্গে কথা বলেননি। লুসাইল স্টেডিয়ামের সাজঘরে প্রায় ১ ঘণ্টা বসেছিলেন ফুটবলাররা। সেখানে মেসি মুখ খোলেননি। কিন্তু বাসে ওঠার আগে সাংবাদিকদের সামনে মেসি বলেন, ‘‘আমরা মারা গিয়েছি। এটাই সত্যি। কারণ, আমরা ভাবতে পারিনি এ ভাবে হারব। তিন পয়েন্টের আশায় মাঠে নেমেছিলাম। সব কিছুর একটা কারণ থাকে। সামনে যা আসবে তার জন্য তৈরি থাকতে হবে। আমাদের জিততেই হবে। সবটাই আমাদের উপর নির্ভর করছে।’’

কাতার বিশ্ববিদ্যালয়ের শিবিরে ফেরার পথে বাসের মধ্যেও মুখ খোলেন নেতা মেসি। সতীর্থদের উদ্দেশে মেসি বলেন, ‘‘আমরা জানি এই দলটা কী দিয়ে তৈরি। সেটা আমাদের মাথায় রাখতে হবে। আরও বেশি শক্তিশালী হয়ে উঠতে হবে। সামনের দিকে তাকাও।’’

কাতার বিশ্ববিদ্যালয়ে যাওয়ার পরে নিজের ঘরে চলে যান মেসি। বাকি ফুটবলাররাও নিজেদের ঘরে যান। একসঙ্গে খেতে নামেননি তাঁরা।

জানা গিয়েছে, নৈশভোজেও খুব একটা কথা বলছিলেন না ফুটবলাররা। তবে তার পরে সমাজমাধ্যমে ফুটবলাররা একে অপরকে উজ্জীবিত করার চেষ্টা করেছেন। এক হারের ধাক্কায় বদলে গিয়েছে আর্জেন্টিনার অনুশীলনের সময়ও। আগে সন্ধ্যা ৬টা বা কখনও দুপুর ৩টে থেকে অনুশীলন করতেন মেসিরা। কিন্তু বুধবার বেলা ১১টা থেকে অনুশীলন করেছেন তাঁরা।

Previous articleকর্মসংস্থানের লক্ষ্যে উত্তরবঙ্গে ম্যানেজমেন্ট বিশ্ববিদ্যালয়, ঘোষণা শিক্ষামন্ত্রীর