সংখ্যালঘু অন্তত ৬০টি আসন হাতছাড়া হতে চলেছে! বিজেপির অভ্যন্তরীণ সমীক্ষা

দলের প্রতি মোদির বার্তা, শিক্ষিত মুসলিম নাগরিকদের কাছে যান। তাঁদের বোঝান। তাঁর এমন মন্তব্যের পরই বিষয়টি স্পষ্ট হল যে, সিঁদুরে মেঘ দেখছেন স্বয়ং প্রধানমন্ত্রী।

ধর্ম নিয়ে রাজনীতি করতে গিয়ে ঘোরতর বিপাকে কেন্দ্রের শাসকদল বিজেপি (BJP)। বিভেদের রাজনীতির মূল্য চোকাতে হতে হবে গেরুয়া শিবিরকে। সূত্রের খবর, বিজেপির অভ্যন্তরীণ একের পর এক সমীক্ষা এবং রিপোর্ট এমনই ইঙ্গিত দিচ্ছে। ফলে সংখ্যালঘু ভোট যে বিজেপিকে ভোগাবে সে ব্যাপারে কার্যত নিশ্চিত হয়ে গিয়েছেন নরেন্দ্র মোদি (Narendra Modi) থেকে অমিত শাহরা (Amit Shah)। মোদি নিজেই দলের নেতা-কর্মীদের বিষয়টি নিয়ে সতর্ক করেছেন।

দলের প্রতি মোদির বার্তা, শিক্ষিত মুসলিম নাগরিকদের কাছে যান। তাঁদের বোঝান। তাঁর এমন মন্তব্যের পরই বিষয়টি স্পষ্ট হল যে, সিঁদুরে মেঘ দেখছেন স্বয়ং প্রধানমন্ত্রী। ইতিমধ্যেই গত লোকসভা ভোটে (Loksabha Election) প্রাপ্ত বিপুল আসন সংখ্যার মধ্যে ১৬০ থেকে ১৮০টি কেন্দ্র নিয়ে রীতিমতো সংশয় প্রকাশ করে রেখেছে বিজেপি। তার উপর এখন সামনে আসছে দলের সর্বভারতীয় সংখ্যালঘু মোর্চার মূল্যায়ন। সেখানে সমীক্ষায় ৬০টি আসনকে নির্দিষ্টভাবে চিহ্নিত করে বলা হয়েছে, এই কেন্দ্রগুলিতে বিজেপির জয়ের আশাই কার্যত নেই।

বিজেপির মূল্যায়ন বাংলা এবং যোগীরাজ্য উত্তরপ্রদেশ ক্ষেত্রে এমন ১৩টি করে সংখ্যালঘু প্রভাবিত লোকসভা আসন চিহ্নিত করেছে বিজেপি। যেখানে গোহারা হারবে দল। এ ছাড়াও রয়েছে উত্তরপ্রদেশ (১৩টি), বিহার (চারটি), কেরল (৬টি), অসম (৬টি), মধ্যপ্রদেশ (৩টি), তেলেঙ্গানা (২টি), হরিয়ানা (২’টি), মহারাষ্ট্র (১টি), জম্মু-কাশ্মীর (৫টি) এবং লাক্ষাদ্বীপ। এরই পাশাপাশি কেরলের অন্য কয়েকটি সংখ্যালঘু প্রভাবিত লোকসভা আসনকেও এর মধ্যে জুড়েছে বিজেপি।

 

 

Previous articleযোশীমঠের পর বদ্রীনাথ! জাতীয় সড়কের একাধিক অংশে ফাটল, বাড়ছে উদ্বেগ