সুন্দরবনে নিষিদ্ধ এলাকায় কাঁকড়া ধরতে গিয়ে বাঘের হামলায় মৃ*ত্যু মৎস্যজীবীর

সুন্দরবনে (Sundarbon) নিষিদ্ধ এলাকায় কাঁকড়া ধরতে গিয়ে বাঘের হামলায় আবার এক মৎস্যজীবীর (Fisherman) মৃ*ত্যু হল। সোমবার বিকেলে বাঘের (Tiger) আক্রমণের মুখে পড়েন দক্ষিণ ২৪ পরগনার কুলতলির বাসিন্দা বাসুদেব বৈদ্য। তাঁর ঘাড়ে আঘাত করে বাঘ। ঘটনাস্থলেই মৃত্যু হয় ওই মৎস্যজীবীর। মঙ্গলবার তাঁর দেহ উদ্ধার করে গ্রামে আনা হয়।

১৯ জানুয়ারি কাঁকড়া ধরতে নৌকা নিয়ে বেরিয়েছিলেন বাসুদেব। তাঁর সঙ্গে ছিলেন আরও ২ জন মৎস্যজীবী। সোমবার বিকেলে মেচুয়ার জঙ্গলের কাছ দিয়ে যাচ্ছিল তাঁদের নৌকা। সেই সময় নৌকার পাটাতনের উপর বসেছিলেন বাসুদেব। আচমকা তাঁর উপর ঝাঁপিয়ে পড়ে বাঘ। বাকি ২ মৎস্যজীবী লাঠি নিয়ে তাড়া করতে জঙ্গলে ফিরে যায় বাঘটি। ফলে বাসুদেবের দেহ টেনে নিয়ে যেতে পারেনি বাঘটি। বাসুদেবের নৌকায় ছিলেন বিপ্লব নাইয়া নামে এক মৎস্যজীবী। তিনি বাঘের আক্রমণের ঘটনার বিবরণ দিয়েছেন। মেচুয়ার যে জঙ্গলে বাঘ হামলা চালিয়েছে, তা সুন্দরবন টাইগার রিজার্ভ ফরেস্টের মধ্যে পড়ে। সেখানে কাউকেই যাওয়ার অনুমতি দেওয়া হয় না। ফলে ওই মৎস্যজীবীরা কী ভাবে সেখানে গেলেন, এ নিয়ে প্রশ্ন উঠেছে। এই ঘটনায় তাঁদের কাছে এখনও পর্যন্ত কোনও তথ্য নেই বলে জানিয়েছেন সুন্দরবন টাইগার রিজার্ভ ফরেস্টের অতিরিক্ত ডিরেক্টর সৌমেন মণ্ডল।

আরও পড়ুন- সংকট চরমে: জ্বালানির অভাবে বিদ্যুৎহীন পাকিস্তান, বিপর্যস্ত জনজীবন

Previous articleসংকট চরমে: জ্বালানির অভাবে বিদ্যুৎহীন পাকিস্তান, বিপর্যস্ত জনজীবন