বাংলাতেই রাজনীতি হয়, স্পেনে দাঁড়িয়ে শিল্পলগ্নি নিয়ে বিরোধীদের সমালোচনার কড়া জবাব সৌরভের

তিনি কোনও রাজনীতিবিদ নন, রাজনীতিতে তাঁর কোনও আগ্রহ নেই। তিনি একজন 'ইনডিভিজুয়াল'। তিনি এমপি, এমএলএ বা কাউন্সিলর নন। কিন্তু তারপরেও তাঁকে নিয়ে বিভিন্ন সময়ে রাজনীতি করা হয়

স্পেন সফরে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের পাশে দাঁড়িয়ে পশ্চিম মেদিনীপুরের শালবনিতে একটি ইস্পাত কারখানায় লগ্নি করার কথা ঘোষণা করেছেন প্রাক্তন ভারত অধিনায়ক সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায়। তাঁর এমন ঘোষণার পর থেকেই বিজেপি তথা বিরোধীদের তরফে রে রে আওয়াজ উঠেছে। রাজ্যের লগ্নিতেই আপত্তি বাংলা ও বাঙালি বিদ্বেষী বিজেপির। এখানেও রাজনীতি খুঁজছে বিরোধীরা। বাংলা বলেই এমনটা হয়। এখানে সবকিছুতেই রাজনীতি খোঁজা হয়। কোনও গঠনমূলক বিষয় নেই, শুধু সমালোচনার জন্যই সমালোচনা। আজ,বুধবার কলকাতায় একটি অনুষ্ঠানে যোগ দিয়ে নাম না করে কার্যত বিজেপি ও বিরোধীদের মোক্ষম জবাব দিলেন সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায়।

সাংবাদিকদের প্রশ্নের উত্তরে প্রাক্তন ভারত অধিনায়ক সাফ জানিয়েদিলেন, তিনি একজন ‘ইনডিভিজুয়াল’ বা স্বাধীন ব্যক্তি। তিনি এমপি, এমএলএ বা কাউন্সিলর নন। তাঁর যখন যেখানে ইচ্ছা যাবেন। সে ব্যাপারে তিনি জবাবদিহি করতে বাধ্য নন। কিন্তু তারপরেও তাঁকে নিয়ে বিভিন্ন সময়ে রাজনীতি করা হয়, আক্ষেপ সৌরভের।

এদিন সৌরভ বলেন, “আমার যেখানে ইচ্ছা আমি সেখানে যাব। রাজনীতিতে আমার কোনও আগ্রহ নেই। কোনও রাজনৈতিক যোগও আমার নেই। আমি একজন ইনডিভিজুয়াল। আমি এমএলএ, এমপি নই। আমার যেখানে ইচ্ছে আমি সেখানেই যাব। বহু লোক বহু জায়গায় ঘুরতে যান। আমাকেও সারা বিশ্ব আমন্ত্রণ জানায়। যেহেতু আমাদের অল্পসংখ্যক কিছু মানুষ হলেও চেনে, তাই আমাদের একটু মান্যতা দেয়। কিন্তু আমার কোনও রাজনৈতিক অ্যাজেন্ডা নেই। স্পেন, কলকাতা, দিল্লি, আমার কাছে কোনও আলাদা কিছু নয়। আমার কাউকে কোনও জবাবদিহি করার কিছু নেই। ১৬ থেকে ২০ মাসের মধ্যে বাংলায় স্টিল প্ল্যান্ট হবে।”

এখানেই শেষ নয়, স্ট্রেট ব্যাটে খেলার মতোই সৌরভের সোজাসাপ্টা জবাব, “যেটা ভালো মনে হবে, তাতেই যাব। পৃথিবীর নানা প্রান্ত থেকেই আমন্ত্রণ পাই। তাই এই অনুষ্ঠান দিল্লিতে হলেও দিল্লি থেকেই ঘোষণা করতাম। কলকাতায় হলে কলকাতা থেকে। কোনও পার্থক্য নেই। এমন সফরে অনেকেই যান। এখানেই দেখি, এসব নিয়ে খুব লাফালাফি হয়, কথা হয়। আমরা জঙ্গলে থাকি না। সমাজে বাস করি। যাঁরা এর মধ্যে বিতর্ক টানছেন, তাঁদের বলব, এসব করবেন না। মানুষের কাছে আমাদের একটা ভাবমূর্তি রয়েছে, সেটা নষ্ট করবেন না। আমার সিদ্ধান্তে যতক্ষণ না কারও ক্ষতি হচ্ছে, ততক্ষণ যেখানে ইচ্ছা, যাব।” সৌরভ খুব ক্ষোভের সঙ্গে বিরোধীদের দিকে ইঙ্গিত করেই যে তাঁর এমন মন্তব্য তা বলার অপেক্ষা রাখে না।

প্রসঙ্গত সম্প্রতি স্পেনের মাদ্রিদে শিল্পলগ্নি সংক্রান্ত এক বৈঠকে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের সঙ্গে একই মঞ্চে ছিলেন সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায়। স্পেন-ইন্ডিয়া কাউন্সিল ফাউন্ডেশন, স্পেন চেম্বার অব কমার্সের সদস্যরাও ছিলেন সেখানে। সেই মঞ্চ থেকেই সৌরভ গঙ্গোপাধ্য়ায় পশ্চিম মেদিনীপুরের শালবনিতে ইস্পাত কারখানা গড়ার কথা ঘোষণা করেন। সৌরভ বলেন, “আমরা বাংলায় তৃতীয় ইস্পাত কারখানা তৈরি করতে শুরু করছি। অনেকেই আমাকে খেলোয়াড় হিসেবে চেনেন, তবে সেটাই সবটা নয়। ২০০৭ সালে আমরা একটি ছোট ইস্পাত কারখানা শুরু করেছিলাম। পুনরায় ৬ মাসের মধ্যে আমরা মেদিনীপুরে আমাদের নতুন স্টিল প্ল্যান্ট তৈরি শুরু করব।” ওই বৈঠক থেকেই মুখ্যমন্ত্রীকে ধন্যবাদ জানিয়ে সৌরভ আরও বলেন যে, “পশ্চিমবঙ্গ সবসময়ই বাকি বিশ্বকে ব্যবসার জন্য আমন্ত্রণ জানিয়েছে। সেই কারণেই আজ স্পেনে মুখ্যমন্ত্রী রয়েছেন। এটা খুব স্পষ্ট যে সরকার রাজ্য এবং যুব সমাজের উন্নয়নে কাজ করতে চায়।”

আরও পড়ুন:কেন বায়োপিক? অকপট মুথাইয়া, মুরলিকে ‘জাদুকর’ বললেন মহারাজ

Previous articleকেন বায়োপিক? অকপট মুথাইয়া, মুরলিকে ‘জাদুকর’ বললেন মহারাজ
Next articleপাহাড়ে পঞ্চায়েতের উন্নয়নে ঢালাও বরাদ্দের ঘোষণা অরূপের