ডার্বিতে রেফারির সিদ্ধান্ত এখনও মেনে নিতে পারছেন না কুয়াদ্রাত, নর্থইস্টের বিরুদ্ধে নামার আগে রেফারিং নিয়ে কী বললেন লাল-হলুদ কোচ?

এদিন সাংবাদিক সম্মেলনে কুয়াদ্রাত বলেন, “প্লে-অফে যেতে গেলে ম্যাচ জিততেই হবে। প্লে-অফই আমাদের লক্ষ্য। তাই তিন পয়েন্টের জন্য লড়াই করব।

রেফারিং নিয়ে এখনো ক্ষোভ যাচ্ছে না ইস্টবেঙ্গল এফসির কোচ কার্লোস কুয়াদ্রাতের। আইএসএলের প্রথম ডার্বি গিয়েছে গত ৩ ফেব্রুয়ারি। সেই ম্যাচে রেফারির সিদ্ধান্ত এখনো মেনে নিতে পারছেন না লাল-হলুদ কোচ। শনিবার নর্থইস্ট ইউনাইটেড ম্যাচের আগে ‘স্পষ্ট ভাষায়’ জানিয়ে দিলেন, রেফারিং ঠিক না হওয়ার কারণে বেশ কিছু ম্যাচে তিন পয়েন্ট পাননি তাঁরা।

এদিন সাংবাদিক সম্মেলনে কুয়াদ্রাত বলেন, “প্লে-অফে যেতে গেলে ম্যাচ জিততেই হবে। প্লে-অফই আমাদের লক্ষ্য। তাই তিন পয়েন্টের জন্য লড়াই করব। খারাপ রেফারিংয়ের জন্যই আমরা মাত্র দুটো ম্যাচে জিতেছি। কিছু ম্যাচে শেষ মুহূর্তের রেফারিং আমাদের জিততে দেয়নি। আগের ম্যাচেও তিন পয়েন্ট নিশ্চিত ছিল। শেষ মুহূর্তে ওই ফাউলটা দেওয়া হয়নি। ফলে দু’পয়েন্ট মাঠেই রেখে আসতে হয়েছে।”

এরপরই লাল-হলুদ কোচ আরো বলেন, “অনেকদিন ধরে ভারতীয় ফুটবলের সঙ্গে আমি যুক্ত। সেই ২০১৬ সাল থেকে। অনেক কিছু দেখেছি। একটি দলকে পেনাল্টি দেওয়া হলে প্রতিপক্ষ দলকেও পেনাল্টি পাইয়ে দেওয়া হয়। একটি দলের প্লেয়ারকে লাল কার্ড দেখানো হলে প্রতিপক্ষ দলের প্লেয়ারকেও শেষবেলায় গিয়ে লাল কার্ড দেখিয়ে দেওয়া হয়। সব সময়েই দু’দলের মধ্যে একটা ভারসাম্য রাখা হয়। এদেশে রেফারিরা শুধু দুর্বল দলের পক্ষেই থাকেন। যখন কোনও দল পিছিয়ে রয়েছে তখন রেফারি তাদের পক্ষ নেন। রেফারির উচিত যা দেখছেন সেটার ভিত্তিতে বাঁশি বাজানো। কারা পিছিয়ে বা কারা এগিয়ে সেটা বিচার করে নয়। আমি ১০০ শতাংশ নিশ্চিত যে, কলকাতা ডার্বিতে যদি মোহনবাগান ২-১ এগিয়ে থাকত এবং সেই সময় আমাদের বক্সে নন্দকুমারকে সাহাল ফাউল করত, তা হলে রেফারি ঠিক বাঁশি বাজাতেন। ওরা এগিয়ে থাকলে সায়নকে ধাক্কা মারার জন্য রেফারি দিমিত্রি পেত্রাতোসকে কার্ড দেখাতেন। আমি অন্য দেশে এরকম দেখিনি। এখানেই এরকম হয়।” এরপরই ওড়িশা এফসি ম্যাচের উদাহরণ টেনে কুয়াদ্রাত বলেন, “ অনেক ম্যাচে আমরা শেষ মুহূর্তে খারাপ রেফারিংয়ের শিকার হয়েছি। ওড়িশা ম্যাচের কথা মনে করে দেখুন।দু’বার পেনাল্টির আবেদন প্রত্যাখ্যান করা হয়েছিল। ভাল রেফারি থাকলে অন্তত তিন-চারটে ম্যাচে আমরা তিন পয়েন্ট পেতে পারতাম।”

আরও পড়ুন- ‘ভারতের সাফল্য পাকিস্তান সহ্যই করতে পারে না’, বল বি.কৃত নিয়ে প্রাক্তন পাক ক্রিকেটারকে ধুয়ে দিলেন শামি

Previous articleবিধানসভায় বাজেট পেশের পরেই বিজেপির ‘কুৎসিত’ চক্রান্ত, FIR দায়ের
Next articleসার্বিক উন্নয়নের সার্থক বাজেট: উপহার সব শ্রেণির জন্য