ভাটপাড়া পুরসভায় অনাস্থা আনল তৃণমূল

ভাটপাড়া পুরসভায় অনাস্থা আনল তৃণমূল। অনাস্থা ভোটে বিজেপিকে হারিয়ে ফের পুরসভা দখলের ছক কষছে শাসকদল। আগেই তৃণণূলের উত্তর চব্বিশ পরগনার জেলা সভাপতি জ্যোতিপ্রিয় মল্লিক জানিয়ে ছিলেন ৬ ডিসেম্বর আনাস্থা আনা হবে। তৃণমূলের কাউন্সিলররা বিজেপিতে যোগদানের পরে নতুন চেয়ারম্যান হিসেবে ভাটপাড়া পুরসভা দায়িত্ব নেন অর্জুন সিংয়ের ভাইপো সৌরভ সিং। নিয়ম অনুসারে, কোনও চেয়ারম্যান দায়িত্ব নেওয়ার পর অন্তত ছয় মাসের মধ্যে পুরসভায় অনাস্থা আনা যায় না। ৬ ডিসেম্বর সৌরভ সিংয়ের মেয়াদ পূর্ণ হতেই ভাটপাড়া পুরসভায় অনাস্থার চিঠি দিল তৃণমূল।

৩৫ আসন বিশিষ্ট ভাটপাড়া পুরসভায় ২০১৫ নির্বাচনে তৃণমূল পেয়েছিল ৩৪টি আসন। একটি আসনে জয়লাভ করে সিপিএম। পরে একজন কাউন্সিলর মারা যাওয়ায় তৃণমূলের কাউন্সিলর সংখ্যা দাঁড়ায় ৩৩। লোকসভা ভোটে বিজেপি প্রার্থী হয়ে জিতে যাওয়ার পরে কাউন্সিলর পদ থেকে ইস্তফা দেন অর্জুন সিং। তৃণমূলের আসনসংখ্যা এসে দাঁড়ায় ৩২। অর্জুন সিংয়ের তৃণমূল ছেড়ে বিজেপিতে যোগ দেওয়া পরে ভাটপাড়া পুরসভার অনাস্থা ভোটে ২৩ জন কাউন্সিলর সমর্থন পেয়েছিল তৃণমূল। সিপিএম সহ বাকি ৯ জন কাউন্সিলর অর্জুন সিংয়ের সঙ্গে ছিলেন। অর্জুন সিং বিজেপিতে যোগ দেওয়া পরে, দিল্লি গিয়ে তৃণমূল কংগ্রেসের ১৮ জন কাউন্সিলর বিজেপিতে যোগদান করেন। তারপর ফের দলবদল হয়। গত মাসেই বিজেপিতে যাওয়া ১৮ জনের ১২ জন তৃণমূলে ফিরে আসে। বর্তমান পরিস্থিতিতে ভাটপাড়া পুরসভার রাজনৈতিক সমীকরণ তৃণমূল-১৭, বিজেপি-১৫। পুর সমীকরণ অনুযায়ী, ১৮ জন কাউন্সিলরের সমর্থন থাকলে অনাস্থা ভোটে জয় পাবে তৃণমূল।