বিজেপি সাংসদ স্বপন দাশগুপ্তর বিরুদ্ধে বিক্ষোভের বদলা নিতেই কি বিশ্বভারতীতে হামলা?

সম্প্রতি শান্তিনিকেতনে বিশ্বভারতী বিশ্ব বিদ্যালয়ে গিয়ে প্রবল বিক্ষোভের মুখে পড়েছিলেন বিজেপির রাজ্যসভার সাংসদ স্বপন দাশগুপ্ত। বিজেপি সাংসদ তখন জানিয়ে ছিলেন তিনি NRC এবং CAA নিয়ে আলোচনা করতেই গিয়েছিলেন বিশ্বভারতীতে। কিন্তু ক্যাম্পাসে তাঁকে আটকে দেওয়া হয়। কালো পতাকা দেখানো হয়। গো ব্যাক স্লোগান দেয় পড়ুয়ারা। বাধ্য হয়ে ফিরে আসেন স্বপন দাশগুপ্ত। এখন প্রশ্ন উঠছে, স্বপন দাশগুপ্তর বিরুদ্ধে যে বিক্ষোভ দেখিয়ে ছিল বিশ্ব ভারতীর পড়ুয়ারা, তার বদলা নিতেই কী এই আক্রমণ? অন্তত এমনটাই দাবি করছেন, এসএফআই-এর সাধারণ সম্পাদক ময়ূখ বিশ্বাস।

তাঁর কথায়, “রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের বিশ্বভারতীতে সাধারণ ছাত্রদের ওপর আক্রমণ কোনও বিচ্ছিন্ন ঘটনা নয়। গোটা দেশে ছাত্রদের বিরুদ্ধে যুদ্ধ ঘোষণা করেছে বিজেপি সরকার। এ তারই অঙ্গ। কয়েকদিন আগে বিশ্বভারতীতে এসএফআই-সহ নানা ছাত্র সংগঠন ও প্রগতিশীল ছাত্ররা বিজেপি সরকারের নীতি ও বিজেপি সাংসদ স্বপন দাশগুপ্তর বিরুদ্ধে যে বিক্ষোভ দেখিয়েছিল, তার বদলা নিতেই এই আক্রমণ হয়েছে উপাচার্যের মদতে। সম্পূর্ণ জেএনইউ মডেলে। এসএফআই এই আক্রমণকে কড়া ভাষায় নিন্দা জানাচ্ছে ও সমস্ত প্রাক্তনী, গণতন্ত্রপ্রিয় ধর্মনিরপেক্ষ মানুষকে প্রতিবাদে সামিল হতে আহ্বান জানাচ্ছে এবং এই আরএসএসের পদলেহনকারী উপাচার্যর পদত্যাগ দাবি করছি।”

আরও পড়ুন-তিনি ভেকধারী ‘বুদ্ধিজীবী’ সাজেন না, কণাদ দাশগুপ্তের কলম