গুজরাতের রিপোর্টেও CO-MORBID-র হিসাব, তাহলে কাঠগড়ায় কেন বাংলা ?

করোনা-সংকটকালে বাংলার বিরুদ্ধে কেন্দ্রীয় সরকার এবং কেন্দ্রের শাসক দল নানাভাবে, বার বার অভিযোগ তুলেছে, রাজ্য তথ্য গোপন করছে৷ অভিযোগে বলা হচ্ছে, ‘কো-মরবিডিটি’-র নামে প্রকৃত করোনা-প্রয়াতদের সংখ্যা হ্রাস করা হচ্ছে৷ রাজ্যের তরফে এর উত্তরে বলা হয়েছে, বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা বা WHO-র গাইড লাইন মেনেই ‘কো-মরবিডিটি’-র উল্লেখ করা হচ্ছে৷ কিন্তু ‘কো-মরবিডিটি’ কেন এবং কোন ক্ষেত্রে বলা হচ্ছে, তা খতিয়ে না দেখেই এই অভিযোগ চলছেই৷ বঙ্গ-বিজেপির একাধিক নেতা একের পর টুইটে এই ইস্যুতে মুণ্ডপাত করে চলেছে রাজ্যের৷

পরিস্থিতি এখন সম্ভবত অন্যদিকে মোড় নেবে৷ কেন্দ্রীয় সরকার এবং কেন্দ্রের শাসক দল এবার
‘কো-মরবিডিটি’ নিয়ে অন্য ব্যাখ্যা নিশ্চিতভাবেই দেবে এবং এই ‘কো-মরবিডিটি’ কতখানি সঠিক তা প্রমান করতে কোমরে গামছা বেঁধেও নামতে পারে৷

কারন, প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি এবং স্বরাষ্ট্র মন্ত্রী অমিত শাহের রাজ্য গুজরাত ৫ মে তারিখে ওই রাজ্যের যে “COVID-19 STATUS” প্রকাশ করেছে, সেখানে জ্বল জ্বল করছে ” Demise Due to CO MORBID conditions on addition to COVID-19″৷
ওই দিনের STATUS-এ
স্পষ্টভাবে লেখা আছে, “Demise Due to COVID-19 = 15”, ঠিক তার পাশেই লেখা হয়েছে,
“Demise Due to CO- MORBID conditions on addition to COVID-19 = 34 “৷

গুজরাতের মতো রাজ্য, যে রাজ্য দাবি করছে করোনা-তথ্য প্রকাশের ব্যাপারে তারা পুরোপুরি স্বচ্ছ, সেই রাজ্য হঠাৎ CO-MORBID-র হিসাব কেন দিচ্ছে, তা বিস্ময়কর৷ কেন্দ্রের শাসক দলের ব্যাখ্যায় তো
CO-MORBID-র হিসাব মানেই তথ্য গোপন করা৷
প্রশ্ন উঠছে, তাহলে গুজরাত সরকার ‘CO- MORBID conditions’ বলতে ঠিক কী বোঝাতে চাইছে ? গুজরাতের ‘CO- MORBID conditions’- এর সঙ্গে বাংলার ‘CO- MORBID conditions’- এর তফাত কী ? বাংলার সরকারের বিরুদ্ধে অভিযোগ, CO- MORBID – এর মোড়কে প্রকৃত করোনা- মৃতদের সংখ্যা গোপন করা হচ্ছে ৷ যারা এই অভিযোগ তুলেছেন, আশা করা যায়, গুজরাতের ক্ষেত্রেও একই অভিযোগ আনবেন৷ সেই কাজ এড়িয়ে যাওয়ার অর্থ, সরাসরি দ্বিচারিতা করা৷
গুজরাতের এই রিপোর্টে বলা হয়েছে, ৫ মে পর্যন্ত গুজরাতে করোনা-কারনে মৃত্যু হয়েছে মোট ৩৬৮ জনের৷ আর পশ্চিমবঙ্গ সরকার বুধবার, ৬ মে জানিয়েছে, করোনা- আক্রান্ত হয়ে এ রাজ্যে মৃত্যু হয়েছে মোট ৭২ জনের৷ গুজরাতের তুলনায় মৃতের সংখ্যা পাঁচ ভাগের একভাগ৷

৫ মে গুজরাতে মোট করোনা আক্রান্তের সংখ্যা ছিলো ৬২৪৫ জন৷ আর এ রাজ্যের স্বরাষ্ট্রসচিব আলাপন বন্দ্যোপাধ্যায় জানিয়েছেন, ৬ মে পর্যন্ত পশ্চিমবঙ্গে করোনা আক্রান্তের মোট সংখ্যা ১৪৫৬ জন৷ গুজরাতের তুলনায় আক্রান্তের সংখ্যা চার ভাগের একভাগ৷

গুজরাতে যেখানে চিকিৎসাধীন সাড়ে ৪ হাজারের বেশি, সেখানে বাংলায় আপাতত চিকিৎসাধীন ১০৪৭ জন৷

ফলে স্বাভাবিকভাবেই প্রশ্ন উঠছে, করোনা পরিস্থিতি এবং চিকিৎসায় সব দিক থেকেই গুজরাত-সহ দেশের একাধিক রাজ্যের তুলনায় পশ্চিমবঙ্গের সামগ্রিক পরিস্থিতি ভালো হওয়া সত্ত্বেও কেন্দ্র বা কেন্দ্রের শাসক দলের তোপের মুখে কেন পড়তে হবে এই বাংলাকে ?