নিজের জালে নিজেই ফাঁসলেন কঙ্গনা রানাওয়াত, তাঁর বিরুদ্ধে এফআইআর দায়েরের নির্দেশ আদালতের

বহুদিন ধরেই দেশ ও দশের সবরকম বিষয়েই নিজের মত প্রকাশ করেন কঙ্গনা রানাওয়াত। তাঁর পক্ষ নিয়ে কথা বলেন তাঁর দিদি রঙ্গোলি চান্দেলও। এবার ধর্মীয় ভাবাবেগে আঘাত দেওয়ার অভিযোগ উঠল দুই বোনের বিরুদ্ধে। তাঁদের বিরুদ্ধে এফআইআর দায়েরের নির্দেশ দিল বান্দ্রার মেজিস্ট্রেট মেট্রোপলিটন আদালত।

কঙ্গনা ও রঙ্গোলির বিরুদ্ধে অভিযোগ, তাঁরা সোশ্যাল মিডিয়ায় উস্কানিমূলক মন্তব্য করে সাম্প্রদায়িক বিভেদ সৃষ্টি করার চেষ্টা করছেন। তাঁদের বিরুদ্ধে অভিযোগ দায়ের করেছেন কাস্টিং ডিরেক্টর তথা ফিটনেস ট্রেনার মুন্নওয়ারলি সৈয়দ। ভারতীয় দণ্ডবিধির ৩৪ নম্বর অনুচ্ছেদের ১৫৩এ, ১৯৫এ এবং ১২৪ ধারায় দায়ের হয়েছে মামলা। সৈয়দের অভিযোগ, একাধিক টুইটে ধর্মীয় বিভেদে উস্কানি দিয়েছেন কঙ্গনা। মুম্বইকে পাক অধিকৃত কাশ্মীরের সঙ্গে তুলনা করেছেন।

শুধু তাই নয়, অভিযোগ, কঙ্গনা ও তাঁর দিদি রঙ্গোলি চান্দেল, বলিউডকে নানাভাবে আক্রমণ করে চলেছেন। নেপোটিজম, ফেভারিটিজম, মাদক যোগ, কোনও কিছুই বাদ নেই। কেন বারবার তাঁরা সব বিষয়ে মাথা গলান, তা খতিয়ে দেখা দরকার বলেই মনে করেন সৈয়দ।

আরও পড়ুন : ৭২০ পেয়ে নিটে প্রথম শোয়েব, একই নম্বর পেয়ে কেন দ্বিতীয় আকাঙ্ক্ষা?

সৈয়দের এফআইআরের পাল্টা টুইট করেছেন কঙ্গনা। মহারাষ্ট্র সরকারকে নিশানা করেছেন তিনি। লিখেছেন, ” এরইমধ্যে আমার বিরুদ্ধে একটা এফআইআর হয়েছে। মহারাষ্ট্রের পাপ্পু সেনা আমাকে ছাড়া আর কিছু দেখতে পাচ্ছে না। আমাকে এত মনে করার দরকার নেই। আমি ওখানে শীঘ্রই যাচ্ছি।”

এতকিছুর মাঝে প্যারিস হত্যাকাণ্ড নিয়েও সরব হন বলিউডের ‘কন্ট্রোভার্সি ক্যুইন’। টুইটারে লেখেন , “একটি কার্টুনের জন্য এক শিক্ষকের মাথা কেটে ফেলা হল। আমি শুধু কল্পনা করতে পারি অতীতে আমাদের লোকজনের কী অবস্থা করেছিল এই হানাদাররা। আজকের ডিজিটাল যুগে শিক্ষিত হয়েও এদের আচরণ রাক্ষসের মতো। ” এতেই থেমে থাকেননি তিনি। আমির খানের ‘পিকে’ ছবির একটি দৃশ্য শেয়ার করা টুইটের প্রেক্ষিতে মন্তব্য করেন, “যদি হিন্দুরা তথকথিত শান্তির বদলে ধর্মীয় অসহিষ্ণুতা প্রদর্শন করত তাহলে অনেকদিন আগেই বলিউডের মুণ্ডচ্ছেদ হয়ে যেত। ”

আরও পড়ুন : নৃশংস! ধর্মনিরপেক্ষতার পাঠ দেওয়ার ‘অপরাধে’ প্যারিসের রাস্তায় মুণ্ডুচ্ছেদ শিক্ষকের

প্রসঙ্গত, কয়েকদিন আগেও কৃষিবিলের বিরোধিতা করে মন্তব্য করতে গিয়ে বিপাকে পড়েছিলেন কুইন কঙ্গনা রানাওয়াত। অভিনেত্রীর বিরুদ্ধে চলে গিয়েছিলেন সমাজের একটা বড় অংশ। সেই টুইটের পরিপ্রেক্ষিতেও, গত ৯ অক্টোবর এফআইআর দায়েরের নির্দেশ দিয়েছে কর্ণাটকের একটি আদালত।