‘ক্ষমতা থাকলে নন্দীগ্রামে জিতে দেখাক’, শুভেন্দুকে চ্যালেঞ্জ সৌগতর

বিক্ষুব্ধ শুভেন্দুর মানভঞ্জন করার দায়িত্ব পড়েছিল সৌগত রায়ের কাঁধে। যদিও সে চেষ্টায় কোনো কার্পণ্য করেননি তৃণমূল সাংসদ সৌগত রায়(Sugata Roy)। সব আলোচনা ও প্রয়াসকে ব্যর্থ করে শনিবার অমিত শাহের(Amit Shah) উপস্থিতিতে বিজেপিতে যোগ দিয়েছেন শুভেন্দু অধিকারী। শুধু তাই নয়, পুরনো দল তৃণমূলের বিরুদ্ধে সরব হতে দেখা গিয়েছে তাঁকে। এহেন অবস্থাতেই এবার নন্দীগ্রামের(Nandigram) বিধায়ক(MLA) শুভেন্দুকে পাল্টা চ্যালেঞ্জ ছুড়ে দিলেন সৌগত রায়। জানিয়ে দিলেন, ক্ষমতা থাকলে নন্দীগ্রামে জিতে দেখাক।

শনিবার শুভেন্দুর বিজেপি যোগদানের পর সংবাদমাধ্যমের তরফে সৌগত রায়কে প্রশ্ন করা হয় শুভেন্দুর দলত্যাগ তৃণমূলে কতখানি শূন্যতার সৃষ্টি করবে? এর উত্তরে সৌগত রায় বলেন, ‘কোনও প্রভাব পড়বে না। আমরা শূন্যস্থান ভরাট করে নেব’। এর পাশাপাশি তিনি আরও জানান, ‘নন্দীগ্রামে ৪০ শতাংশ মুসলিম ভোট। জিতবেন কী করে? সংখ্যালঘুরা ভোট দেবে না। জিততে কষ্ট হবে।’ শুধু তাই নয়, এদিনের সভা মঞ্চ থেকে অমিত শাহকে বলতে শোনা যায়, ‘ভোট যত এগিয়ে আসবে দিদি আপনি তত নিঃসঙ্গ হয়ে যাবেন।’ এর পাল্টা দিয়ে সৌগত এদিন বলেন, ‘অমিত শাহ মনে করেন টাকার জোরে, ক্ষমতার জোরে ২০০ আসনে জিতবেন! ভোটের ফল বেরোলেই বুঝতে পারবেন। তৃণমূলের জনভিত্তি আছে। শুভেন্দু বিশ্বাসঘাতকতা করেছে।’

আরও পড়ুন:২০১৪ থেকেই শাহের সঙ্গে যোগাযোগ ভরা জনসভায় স্বীকারোক্তি শুভেন্দুর

এদিকে পদ্ম শিবিরে যোগ দেওয়ার পর অমিত শাহের উপস্থিতিতে মেদিনীপুরের সভা মঞ্চ থেকে তৃণমূলের বিরুদ্ধে সরব হতে দেখা যায় একদা মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের বিশ্বস্ত সৈনিককে। বলেন, ‘আজ পৃথিবীর সবচেয়ে বড় পার্টিতে যোগ দিলাম। জাতীয়তাবাদ, বহুত্ববাদ, দেশপ্রেমে বিশ্বাস করে এই দল। ‘বসুধৈব কুটুম্বকম’, ‘সর্বজন হিতায় সর্বজন সুখায়’ আদর্শ মেনে চলে।’ পাশাপাশি ‘বড়ভাই’ বলেও সম্বোধন করেন তিনি।