বুঝতে পারিনি জলঢোঁড়া ভেবে আমি কেউটে পুষেছি: নাম না করে অধিকারীদের তীব্র কটাক্ষ মমতার

নন্দীগ্রামে প্রচারে গিয়েই বিজেপি (Bjp) নেতা শুভেন্দু অধিকারী (Shubhendu Adhikari) তথা অধিকারী পরিবারকে তীব্র কটাক্ষ করলেন তৃণমূল (Tmc) সুপ্রিমো মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় (Mamata Bandopadhyay)। তিনি বলেন, বুঝতে পারিনি জলঢোঁড়া ভেবে আমি কেউটে পুষেছি। রবিবার, রেয়াপাড়া শিবমন্দিরে দোল উৎসবে গিয়ে নাম না করে অধিকারী পরিবারকে এভাবেই আক্রমণ করেন মমতা। তিনি বলেন, “আমার ভুল হয়েছে, আমি অন্ধ ভালবাসা দিয়েছিলাম, অন্ধের মতো বিশ্বাস করেছিলাম। এরকম ভাবে পিছন থেকে ছুরি মারবে আমি ভাবতেও পারিনি”।

মমতা বলেন, “এত টাকা করেছে, যে বিজেপির কাছে গিয়ে সে টাকা লুকোতে হচ্ছে”।

১০ মার্চ নন্দীগ্রামেই আহত হয়েছিলেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। ১৮ দিন পর দোলপূর্ণিমার সন্ধেয় আবার নন্দীগ্রামে সভা করেন তৃণমূল নেত্রী। রেয়াপাড়া শিব মন্দিরে প্রথম সভা থেকেই মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় স্পষ্ট করেন কেন নন্দীগ্রামের প্রার্থী হন তিনি। মমতা বলেন, “নন্দীগ্রামের মানুষের যে লড়াইকে সম্মান জানানো কর্তব্য আমার। তাই নন্দীগ্রামে দাঁড়িয়েছি”। মমতার কথায় নন্দীগ্রামের মানুষের সমর্থন নিয়েই তিনি ভোটে দাঁড়িয়েছেন। তিনি ভোটে দাঁড়াবার কথা বলতেই, “এখানকার ছেলেরা হাত তুলে নাচতে শুরু করে।” তিনি বলেন, “বাংলার যেখান থেকে ইচ্ছে দাঁড়াতে পারি। আমি নন্দীগ্রামকে প্রণাম সেলাম করার জন্য এখানে দাঁড়িয়েছি।”

তৃণমূল সুপ্রিমো বলেন, দোসরা মে আবার রং খেলা হবে। সবুজ আবির নিয়ে দোল উৎসব পালন করবে নন্দীগ্রাম। এই অনুষ্ঠানে কীর্তন পরিবেশন করেন, রাজারহাটের তৃণমূল প্রার্থী গায়িকা অদিতি মুন্সি।

আরও পড়ুন- সাগরের সভা থেকে তৃণমূলকে তোপ শুভেন্দুর

Advt