Piyali Basak: এভারেস্ট জয় করে এবার ঘরের মেয়ে ফিরল ঘরে

চারিদিকে তুষারঝড় তার সঙ্গে বরফ , এই অবস্থায় মনের জোরে উপরে উঠতে হয়েছিল । তাঁর এই সাফল্যের পরে তিনি শুভানুধ্যায়ীদের এবং তার শিক্ষাগুরু অপূর্ব চক্রবর্তীসহ সকলকে ধন্যবাদ জানিয়ে বলেছেন, যে এই পর্বতারোহণ এমন একটা স্পোর্ট যেখানে পদে পদে মৃত্যুর হাতছানি। এর জন্য প্রচুর ট্রেনিং এর দরকার, প্রয়োজনীয় পুষ্টিকর খাওয়া দরকার ।

সুমন করাতি, হুগলি

চন্দননগরের (Chandannagar) গর্ব এভারেস্টজয়ী পিয়ালী বসাক (Piyali Basak) ফিরলেন তাঁর নিজের বাড়িতে। শনিবার সকালে নিজের বাড়ি চন্দননগরে ফিরলেন বাংলা তথা দেশের গর্ব পিয়ালি বসাক। জয়ের মুহূর্তকে স্মরণীয় করে রাখতে বাজনা শঙ্খ ধ্বনি সহযোগে বাজনা বাজিয়ে শোভাযাত্রা করে ঘরের মেয়েকে বরণ করে নিল চন্দননগরের মানুষজন । গত ৪ মে চন্দননগর থেকে এভারেস্ট (Everest)জয় করতে হিমালয়ের পথে পাড়ি দিয়েছিলেন পিয়ালী। অত্যন্ত কঠিন এই অভিযানে পদে পদে ছিল বাধা, অর্থের অভাবে বারবার থামতে হয়েছে তাঁকে। কিন্তু লক্ষ্যে অবিচল পিয়ালি শেষমেশ অক্সিজেন ছাড়াই পৌঁছে যান এভারেস্টের শৃঙ্গে। যখন এখান থেকে তিনি অভিযানের উদ্দেশ্যে রওনা দেন, তখন খরচের ৩০ লক্ষ টাকা জোগাড় হয়নি। মাত্র ১২ লক্ষ টাকা জোগাড় করে এলাকার মানুষ,রোটারি ক্লাব এবং স্বহৃদয় মানুষদের সাহায্য পেয়ে স্বপ্ন পূরণের উদ্দেশ্যে যাত্রা শুরু । এখনও কিছু টাকা বাকি থাকায় সার্টিফিকেট পাননি পিয়ালি। এদিন যখন পিয়ালী চন্দননগরের মাটিতে পা রাখেন তখন এলাকায় জনজোয়ার। স্থানীয় পৌর প্রতিনিধি মোহিত নন্দীর (Mohit Nandi) নেতৃত্বে এলাকার মানুষজন তাঁকে শোভাযাত্রা করে বাড়িতে নিয়ে যান।

বাড়ি ফিরে খুশি পিয়ালী, জানালেন বিনা অক্সিজেনে প্রায় ৮০০০ মিটার এভারেস্ট-এর শৃঙ্গে ওঠা অত্যন্ত বিপদজনক। তাঁর অভিজ্ঞতার সম্বন্ধে বলতে গিয়ে পিয়ালী জানান, যখন তিনি এভারেস্ট অভিযানের জন্য ওখানে গিয়েছিলেন সেই সময় আবহাওয়া ভালো ছিল । কিন্তু অভিযান শুরুর পর সেখানকার আবহাওয়া অত্যন্ত বিপদসংকুল হয়ে উঠেছিল। চারিদিকে তুষারঝড় তার সঙ্গে বরফ , এই অবস্থায় মনের জোরে উপরে উঠতে হয়েছিল । তাঁর এই সাফল্যের পরে তিনি শুভানুধ্যায়ীদের এবং তার শিক্ষাগুরু অপূর্ব চক্রবর্তীসহ সকলকে ধন্যবাদ জানিয়ে বলেছেন, যে এই পর্বতারোহণ এমন একটা স্পোর্ট যেখানে পদে পদে মৃত্যুর হাতছানি। এর জন্য প্রচুর ট্রেনিং এর দরকার, প্রয়োজনীয় পুষ্টিকর খাওয়া দরকার । আর্থিক সঙ্গতি না থাকলে এটা করা যায় না। ইতিমধ্যে তিনি যে অন্যান্য অভিযানগুলো করেছেন তার ফলে প্রায় ৪০ লক্ষ টাকা ব্যাংকে ঋণ রয়েছে তাঁর । তিনি বলেন এখন সরকার যদি এগিয়ে আসেন তাহলে কিছুটা হলেও সমস্যার সুরাহা হয়।



Previous articleরাজ্যসভা নির্বাচন: শিবসেনাকে ধাক্কা দিয়ে ষষ্ঠ আসনে জয়ী বিজেপি প্রার্থী