মোদি শাসনে ভারত ত্যাগের হিড়িক, ১ বছরে নাগরিকত্ব ছেড়েছেন ১.৫ লক্ষের বেশি

মোদি শাসনে(Modi Govt) ভারত ছাড়ার হিড়িক পড়েছে দেশবাসীর মধ্যে। ভারতের নাগরিকত্ব(Indian citizen) ছেড়ে অন্য কোনও দেশের নাগরিকত্ব নিচ্ছেন মানুষ। আর এই দিনে দিনে বেড়ে চলেছে ক্রমাগতভাবে। সম্প্রতি এই সংক্রান্ত রিপোর্টই প্রকাশ্যে আনল কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রকের প্রতিমন্ত্রী নিত্যানন্দ রাই। রিপোর্ট বলছে, শুধুমাত্র ভারতের নাগরিকত্ব ছেড়ে অন্য দেশে চলে গিয়েছেন ১ লক্ষ ৬৩ হাজার ৩৭০ জন। নিঃসন্দেহে এই সংখ্যাটা বিজেপি(BJP) সরকারের কপালে ভাঁজ ফেলার জন্য যথেষ্ট।

শুধুমাত্র ব্যবসা ক্ষেত্রের উদাহরণ তুলে এর আগে তৃণমূল নেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় সহ অন্যান্য বিরোধীদের তরফে অভিযোগ তোলা হয়েছিল বহু ব্যবসায়ী ভারত ছেড়ে অন্য দেশে চলে যাচ্ছেন। কেন্দ্রীয় সরকারের উচিত বিষয়টিকে গুরুত্ব দেওয়া। আর সেই কথাই স্বীকার করে নিয়ে এদিন প্রকাশিত কেন্দ্রীয় রিপোর্ট বলছে, ২০২০ সালে ৮৫ হাজার ২৫৬ জন ভারতীয় দেশ ছেড়ে অন্য দেশে চলে গেছেন। ২০২১ সালে এই সংখ্যাটা বেড়ে দাঁড়িয়েছে ১ লক্ষ ৬৩ হাজার ৩৭০ জন। এক বছরে দেশছড়ার সংখ্যায় এই বিপুল বৃদ্ধি স্বাভাবিকভাবেই প্রশ্ন তুলছে মোদির শাসন নিয়ে। জানা গিয়েছে যারা দেশ ছেড়েছেন তাঁদের ৫০ শতাংশই মার্কিন নাগরিকত্ব নিয়েছেন। সূত্রের খবর, যারা দেশ ছেড়েছেন তাঁদের বেশিরভাগই ব্যবসায়ী ও সংখ্যালঘু সম্প্রদায়ের। প্রসঙ্গত, ২০১৯ সালে ভারতের নাগরিকত্ব ছাড়ার সংখ্যাটা ছিল ১ লক্ষ ৪৪ হাজার ১৭ জন।

উল্লেখ্য, বিরোধীদের তরফে বারবার অভিযোগ তোলা হয়েছে দেশের মাটিতে মোদি ঘনিষ্ঠ কিছু ব্যবসায়ী ছাড়া ক্ষুদ্র-মাঝারি ব্যবসায়ীদের সর্বনাশ করে চলেছে মোদি সরকার। যার জেরে দেশ ছাড়ছেন একের পর এক ব্যবসায়ী। যদিও এবিষয়ে মোদি সরকারের এতদিন কোনও উচ্চবাচ্য করা হয়নি, এবার সংসদে প্রশ্ন-উত্তর পর্বে সেই রিপোর্টই প্রকাশ্যে আনল মোদি সরকার।


Previous articleউত্তরাখন্ডে ভয়াবহ দুর্ঘটনা, আহত অন্তত ১০