শুধু স্বাক্ষর করলেই ভাতা নয়, বৈঠকে যোগ দেওয়ার স্পষ্ট বার্তা স্পিকারের

পশ্চিমবঙ্গ বিধানসভায় বিভিন্ন স্ট্যান্ডিং ও অ্যাসেম্বলি কমিটি রয়েছে। মোট কমিটির সংখ্যা ৪১। রাজ্যের ২৯৪ জন বিধায়ককে দুই থেকে তিনটি কমিটিতে রাখা হয়।

বিধানসভার বিশেষ অধিবেশন (Special Session of the Legislative Assembly) শেষ হল বৃহস্পতিবার। কিন্তু অধিবেশন শেষ মানেই যে বৈঠক বা কাজের শেষ নয় তা স্পষ্ট করে দিলেন স্পিকার বিমান বন্দ্যোপাধ্যায় (Biman Banerjee)। এদিন বিধানসভার অধিবেশন শেষ এর আগেই স্পিকার জানান শুধুমাত্র ভাতা পাওয়ার জন্য স্বাক্ষর করলে চলবে না। তাঁর নিশানায় শাসক এবং বিরোধী দুই দলেরই বিধায়করাই ছিলেন। স্পিকারের কথা সঠিক এমনটা জানিয়েছেন রাজ্যের পরিষদীয় মন্ত্রী শোভনদেব চট্টোপাধ্যায় (Sovandeb Chatterjee) ।

বিধানসভার অধিবেশন শেষ মানেই বৈঠক শেষ নয়। আগামী দিনে কাজকর্ম চলতে থাকবে এবং সেই মতো প্রতিটি বৈঠকে যোগদান করতে হবে বিধায়কদের এমন কথাই বৃহস্পতিবার জানিয়ে দিলেন বিধানসভার স্পিকার বিমান বন্দ্যোপাধ্যায়। তিনি অভিযোগ করে বলেন কেবলমাত্র ভাত খাওয়ার জন্য বিধায়করা কমিটির বৈঠকে খাতায় সই করে দিয়ে চলে যান এটা কখনোই কাম্য নয়। জনগণ তাঁদের জয়ী করে বিধানসভায় পাঠিয়েছেন। অতএব তাঁদের দায়িত্ব সরকারের ঠিক ভুল যাচাই করে নেওয়া । উল্লেখ্য পশ্চিমবঙ্গ বিধানসভায় বিভিন্ন স্ট্যান্ডিং ও অ্যাসেম্বলি কমিটি রয়েছে। মোট কমিটির সংখ্যা ৪১। রাজ্যের ২৯৪ জন বিধায়ককে দুই থেকে তিনটি কমিটিতে রাখা হয়। সেই কমিটির বৈঠকে যোগ দিলে বিধায়করা ভাতা বাবদ অর্থ পান। স্পিকারের অভিযোগ শুধুমাত্র ভাতা পাওয়ার জন্য বৈঠকের খাতায় বিধায়করা স্বাক্ষর করেন ঠিকই, কিন্তু বৈঠকে উপস্থিত থাকেন না।পাশাপাশি বিধানসভা থেকে কোনও বিধায়কদের প্রতিনিধিদল রাজ্যের কোনও প্রান্তে পরিদর্শনে গেলেও বহু বিধায়ক সেই সফর এড়িয়ে যান। স্পিকারের এমন অভিযোগ মেনে নিয়ে পরিষদীয় মন্ত্রী শোভনদেব চট্টোপাধ্যায় বলেন, রাজ্যের মানুষের স্বার্থে অধিবেশনে যেমন নিয়মিত যোগদান করা উচিত, তেমনই কমিটির বৈঠকেও যোগ দিয়ে নিজেদের দায়িত্ব পালন করা উচিত। যদিও স্পিকারের মন্তব্যের পাল্টা সমালোচনার করেছে বিজেপি।

Previous articleরোহিতদের হার নিয়ে চিন্তিত নন সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায়, বললেন, পরের ম্যাচ গুলোতে উন্নতি করবে দল