ডেঙ্গি নিয়ে তথ্যগোপন ! কেন্দ্রের অভিযোগ উড়িয়ে দিলেন স্বয়ং স্বাস্থ্য অধিকর্তা

প্রতি সপ্তাহে জেলার স্বাস্থ্যবিভাগের সঙ্গে বৈঠক করে তথ্য সংগ্রহ করে স্বাস্থ্যভবন (Swasthya Bhawan)। তথ্য পাওয়া যায় ব্লক স্তর থেকে। তারপর তা একত্র করে বিভিন্ন বিভাগ অনুযায়ী ডেটা ব্যাংক তৈরি হয় যা সরাসরি পাঠানো হয় দিল্লিতে।

ডেঙ্গি (Dengue) নিয়ে শুরু হল রাজনীতি। তথ্য গোপনের অভিযোগ তুলে রাজ্যের বিরুদ্ধে সরব কেন্দ্র (Central Government)। পাল্টা জবাব দিলেন রাজ্যের স্বাস্থ্য অধিকর্তা (Health Officer)। কেন্দ্রীয় সরকারের তরফে অভিযোগ করে বলা হয়েছে ডেঙ্গি (Dengue) সংক্রান্ত তথ্য সঠিক ভাবে না আসায় প্রয়োজনীয় সাহায্য পাঠানো যাচ্ছে না রাজ্যকে। প্রত্যুত্তরে সুর চড়িয়েছেন স্বয়ং স্বাস্থ্য অধিকর্তা। তিনি জানিয়েছেন প্রতি সপ্তাহে নিয়ম করে রিপোর্ট পাঠানো হয় দিল্লিতে (Delhi)। শুধু ডেঙ্গি নয়, সমস্ত রোগের তথ্যই সুনির্দিষ্ট পদ্ধতিতে পাঠায় পশ্চিমবঙ্গ সরকারের স্বাস্থ্য দফতর (Department of Health and Family Welfare West Bengal Govt), যা অন্য যে কোনও রাজ্যের ক্ষেত্রে প্রায় হয় না বললেই চলে।

রাজ্যে বাড়ছে ডেঙ্গি আক্রান্তের সংখ্যা। অথচ রাজ্য সরকার সঠিক পরিসংখ্যান কেন্দ্রকে পাঠাচ্ছে না। শুক্রবার কলকাতায় একটি অনুষ্ঠানে যোগ দিতে এসে কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্য প্রতিমন্ত্রী ভারতী প্রবীণ পাওয়ার ঠিক এই অভিযোগই করলেন রাজ্য সরকারের বিরুদ্ধে। এর আগে কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্য ও পরিবারকল্যাণমন্ত্রী মনসুখ মান্ডব্যকে (Mansukh Mandvya) সোমবার চিঠি লিখে বাংলায় কেন্দ্রীয় প্রতিনিধি দল পাঠানোর আর্জি জানিয়েছিলেন বিরোধী দলনেতা শুভেন্দু অধিকারী (Suvendu Adhikari) । শুক্রবার কেন্দ্রীয় প্রতিমন্ত্রী বলেছেন, ‘ডেঙ্গি নিয়ে প্রতিনিয়ত কেন্দ্র সরকার রাজ্যগুলোকে নির্দেশ দিচ্ছে। কিন্তু এখনও বাংলার সরকার ডেঙ্গি নিয়ে কোনও তথ্য দেয়নি কেন্দ্রকে।

এর পাল্টা উত্তরে কেন্দ্রের সব অভিযোগ উড়িয়ে রাজ্যের স্বাস্থ্য অধিকর্তা সিদ্ধার্থ নিয়োগী (Siddhartha Niyogi) সাফ জানান, কেন্দ্রের অভিযোগ একেবারেই ঠিক নয়। শুধু ডেঙ্গি কেন, রাজ্য সরকার কোনও রোগের তথ্যই গোপন করে না। প্রতি সপ্তাহে জেলার স্বাস্থ্যবিভাগের সঙ্গে বৈঠক করে তথ্য সংগ্রহ করে স্বাস্থ্যভবন (Swasthya Bhawan)। তথ্য পাওয়া যায় ব্লক স্তর থেকে। তারপর তা একত্র করে বিভিন্ন বিভাগ অনুযায়ী ডেটা ব্যাংক তৈরি হয় যা সরাসরি পাঠানো হয় দিল্লিতে। স্বাস্থ্য অধিকর্তার এই মন্তব্যের পরে রাজনৈতিক মহলের একাংশ মনে করছে, বাংলাকে কেন্দ্রের টাকা থেকে বঞ্চনা করার উদ্দেশ্য নিয়েই এই ধরনের অভিযোগ করে রাজনীতির ময়দান গরম করতে চাইছে বিজেপি (BJP)।

অন্যদিকে ফের শহরে ডেঙ্গি আক্রান্তের মৃ*ত্যু। কলকাতার সার্ভে পার্ক এলাকার এক যুবক রোহিত দাস কিছু দিন আগেই ডেঙ্গির উপসর্গ নিয়ে হাসপাতালে ভর্তি হন। প্রাথমিকভাবে সুস্থ হলেও পরবর্তীতে ফের জটিলতা বাড়লে তাকে বেসরকারি নার্সিংহোমে ভর্তি করা হয় । আজ শুক্রবার তাঁর মৃ*ত্যু হয়েছে বলে পরিবার সূত্রে খবর।

Previous articleএবার অনুব্রত-সুকন্যার পঞ্চম লটারির খোঁজ পেল সিবিআই, অ্যাকাউন্টে ঢুকেছিল ৫০ লক্ষ