পঞ্চায়েত নির্বাচনের আগে তৎপর রাজ্য পুলিশ! বিভিন্ন প্রান্তে তল্লাশি চালিয়ে উদ্ধার তাজা বোমা

বৃহস্পতিবার কুলপিতে বোমা ফেটে জখম ২ শিশু। কুলপি থানার ছামনাবনি গ্রামের ঘটনা। পুলিশ সূত্রে খবর, ছামনাবনি গ্রামের একটি পোলের তলায় প্লাস্টিকে মোড়া অবস্থায় পড়েছিল বোমাগুলি। ৩ নাবালক সেই প্লাস্টিকের মধ্যে থাকা বোমা তুলে এনে বল ভেবে ছুঁড়ে খেলতে যায়। তখনই ওই বোমাগুলি থেকে বিস্ফো*রণ ঘটে।

বুধবার উত্তপ্ত হয়ে উঠেছিল কেশপুর (Keshpur)। স্থানীয় চড়কা গ্রামে বোমার (Bombs) আঘাতে এক তৃণমূল কর্মীর হাত উড়ে যায়। ঘটনার ২৪ ঘণ্টাও কাটতে না কাটতেই এবার কেশপুরের চড়কা গ্রামের একটি কালভার্টের (Calvert) নীচ থেকে উদ্ধার হল ২৫টি তাজা বোমা। পরে বোম্ব স্কোয়াড ঘটনাস্থলে পৌঁছে বোমাগুলি নিষ্ক্রিয় (Defuse) করে। ঘটনাস্থলে নিয়ে আসা হয় ফায়ার ব্রিগেডের (Fire Brigade) গাড়িও। তৃণমূল নেতা অজিত মাইতির অভিযোগ, বিজেপি (BJP) ও সিপিএম (CPIM) মিলে পঞ্চায়েত নির্বাচনের আগে কেশপুরকে অশান্ত করার চেষ্টা করছে। এদিকে কেশপুরের চরকা গ্রামে বোমা বিস্ফোর*ণের ঘটনায় ৬ জনকে গ্রেফতার (Arrests) করেছে পুলিশ।

পাশাপাশি বৃহস্পতিবার কুলপিতে বোমা ফেটে জখম (Ijured) ২ শিশু। কুলপি থানার (Kulpi Police Station) ছামনাবনি গ্রামের ঘটনা। পুলিশ সূত্রে খবর, ছামনাবনি গ্রামের একটি পোলের তলায় প্লাস্টিকে মোড়া অবস্থায় পড়েছিল বোমাগুলি। ৩ নাবালক সেই প্লাস্টিকের মধ্যে থাকা বোমা তুলে এনে বল ভেবে ছুঁড়ে খেলতে যায়। তখনই ওই বোমাগুলি থেকে বিস্ফো*রণ ঘটে। বিস্ফো*রণের ঘটনায় আহত হয় ২ নাবালক। আহতদেরকে উদ্ধার করে কুলপি গ্রামীণ হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়। সেখানে প্রাথমিক চিকিৎসার পর ছেড়ে দেওয়া হয় তাদের। ইতিমধ্যে বোমা উদ্ধারের ঘটনায় ৩ জনকে গ্রেফতার করেছে কুলপি থানার পুলিশ। পাশাপাশি এলাকা থেকে ৫টি তাজা বোমা ও একটি লোডেড আগ্নে*য়াস্ত্রও উদ্ধার হয়েছে।

এদিকে মিনাখাঁর (Minakhan) বিস্ফোরণে মৃত্যু হয়েছে ৯ বছরের বালিকার। ইতিমধ্যে পুলিশ স্বতঃপ্রণোদিত মামলা রুজু করে তদন্ত শুরু করেছে। গ্রেফতার করা হয়েছে বাড়ি মালিক ও বিস্ফোর*ণে মৃত নাবালিকার মামাকেও। মামার বাড়িতে বেড়াতে গিয়েই বোমা বিস্ফো*রণে মৃত্যু হয় নাবালিকার। বসিরহাট জেলার মিনাখাঁ থানার চাপালি গ্রাম পঞ্চায়েতের অন্তর্গত গাইন পাড়ার ঘটনা। বুধবার সন্ধেয় খেলতে খেলতে খড়ের গাদায় বলের মতো কিছু একটা পড়ে থাকতে দেখতে পায় ঝুমা। বল ভেবে সেটা কুড়োতে গিয়েই ঘটে বিপত্তি। সে হাত দিতেই বিকট শব্দে বিস্ফো*রণ হয়। ঘটনাস্থলেই মৃ*ত্যু হয় শিশুটির।

আগামী বছরের শুরুতেই রাজ্যে পঞ্চায়েত ভোট (Panchayat Election)। এদিকে রাজ্যে নির্বাচনের সময় এগিয়ে আসতেই, ক্রমশ ছড়িয়ে পড়ছে হিংসার আবহ। তবে ইতিমধ্যে রাজ্য পুলিশের কড়া প্রহরায় বাংলার একাধিক জায়গা থেকে উদ্ধার করা হচ্ছে অস্ত্র, বোমা, কার্তুজ। নির্বাচনের আগে দুষ্কৃ*তীরা যাতে কোনভাবেই রাজ্যের শান্ত পরিবেশকে অশান্ত করতে না পারে তাঁর জন্য ইতিমধ্যেই নবান্নের তরফে পুলিশকে সতর্ক করা হয়েছে। আর সেই মতোই একাধিক জায়গায় তল্লাশি অভিযান চালিয়ে তাজা বোমা উদ্ধার করছে রাজ্য পুলিশ।

Previous articleসব বিএড উত্তীর্ণরাই প্রাথমিকের টেটে বসতে পারবেন: নির্দেশ বিচারপতি গঙ্গোপাধ্যায়ের, পর্ষদ-SSC-র প্রশংসা