বিজ্ঞপ্তি জারি করে পড়ুয়াদের খালি করার নির্দেশ খড়গপুর আইআইটি-র

২০ জুনের মধ্যে পড়ুয়াদের হস্টেল খালি করতে বলল আইআইটি-খড়গপুর। কারণ হিসেবে বলা হয়েছে, লকডাউনের মধ্যে যে মেস স্টাফ ও ওয়ার্ড বয় অবিরাম কাজ করছিলেন, তাঁরা বাড়ি যেতে চান। কর্তৃপক্ষের এই নির্দেশের বিরোধিতা করেছেন একাংশের পড়ুয়া সহ অধ্যাপকরা।

লকডাউন শুরু হওয়ার পর হস্টেল ছাড়তে বলেনি কর্তৃপক্ষ।আনলক ফেজ ওয়ানে গণপরিবহন ব্যবস্থা স্বাভাবিক হয়নি। চলছে না ট্রেনও। এই অবস্থায় বাড়ি ফিরতে গেলে সমস্যার সম্মুখীন হতে হবে পড়ুয়াদের। এক প্রবীণ শিক্ষক বলেন, এই সময় বাড়ি ফিরতে গেলে গাড়ি ভাড়া করতে হবে। কারণ ট্রেন চলছে না। পড়ুয়া সহ গবেষকদের বিপুল পরিমাণ অর্থ ব্যয় হবে তাতে। কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে, বর্তমানে ১০,৫০০ জন পড়ুয়াদের মধ্যে প্রায় ২ হাজার পড়ুয়া ছাত্রাবাসেই আছেন।

আইআইটি রেজিস্ট্রার বিএন সিং ১০ ই জুন একটি বিজ্ঞপ্তি জারি করে বলেন, “২০১৯-২০ শিক্ষাবর্ষ বন্ধ হয়ে গিয়েছে। পঠন পাঠন সংক্রান্ত যাবতীয় কাজ ১৫ জুনের মধ্যে শেষ হয়ে যাবে। শিক্ষাবর্ষের কাজ আবার সেপ্টেম্বর থেকে শুরু হতে পারে। স্নাতক, স্নাতকোত্তর, গবেষক, প্রজেক্ট কর্মীরা যারা হস্টেল বা হলে আছেন তাঁদের বাড়ি চলে যেতে অনুরোধ করছি। ২০ জুন থেকে হস্টেল ও হলগুলিতে মেস বন্ধ করে দেবে ইনস্টিটিউট।”

ওই বিবৃতিতে রেজিস্টার আরও উল্লেখ করেছেন, “লকডাউন শুরু হওয়ার পর অনেকেই হস্টেল ছেড়ে বাড়ি চলে গিয়েছেন। বাকিদের হস্টেলে থাকার অনুমতি দেওয়া হয়েছিল। এ সময় তাঁরা সব সুযোগ-সুবিধা পেয়েছেন। আনলক ফেজ ওয়ান শুরু হওয়ার পর প্রায় ৩ হাজার পড়ুয়া বাড়ি ফিরে গিয়েছেন। বাকিদেরও যেতে অনুরোধ করছি।
আমাদের ওয়ার্ড বয়, নিরাপত্তারক্ষী এবং অন্যান্য কর্মীদের বিরতি দেওয়া প্রয়োজন।”