এটা ট্রেলার ছিল, আগামী পাঁচ বছর উন্নয়নের জোয়ার দেখবেন: অভিষেক

রাজ্যে দ্বিতীয় দফার নির্বাচনের জন্য মঙ্গলবারই ছিল প্রচারে শেষ দিন। দক্ষিণ 24 পরগনার তিনটি বিধানসভা- গোসাবা, সাগর এবং পাথরপ্রতিমায় তিনটি সভা করেন ডায়মন্ড হারবারের সাংসদ অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায় (Abhishek Benarjee)। এই সভা থেকে রাজ্য সরকারের বিভিন্ন উন্নয়নমূলক কাজের খতিয়ান তুলে ধরেন তিনি। এরপর অভিষেক জানান, “যা উন্নয়ন দেখেছেন তা একটা ট্রেলার (Trailer) ছিল, আগামী পাঁচ বছর উন্নয়নের জোয়ার দেখবেন”। তৃতীয়বার মুখ্যমন্ত্রী হওয়ার পর তৃণমূল (Tmc) নেত্রী বাংলাকে সব দিক দিয়ে ভারতের এক নম্বর জায়গায় স্থানে নিয়ে যাবেন। একইসঙ্গে তৃণমূলের যুব সভাপতি বলেন, মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের (Mamata Bandopadhyay) যেসব জনকল্যাণমূলক উন্নয়ন প্রকল্প কন্যাশ্রী-রূপশ্রী-স্বাস্থ্যসাথী বিজেপি ক্ষমতায় এলে বন্ধ করে দেবে।

এদিন দক্ষিণ 24 পরগনার সভাগুলি থেকেও কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহকে (Amit Shah) চ্যালেঞ্জ ছুড়ে দেন অভিষেক। তিনি বলেন, অমিত শাহ যদি নিজের কথা মতো বাংলার প্রত্যেকটি মানুষকে 5 লক্ষ টাকা করে দিয়ে দেন, তাহলে তৃণমূল নির্বাচনে লড়াইয়ের ময়দান ছেড়ে দেবে।

এদিন বিজেপির পাশাপাশি বাম-কংগ্রেস-আইএসএফের (Left-Congress-Isf) সংযুক্ত মোর্চাকেও কটাক্ষ করেন তৃণমূল সাংসদ। তিনি বলেন, একসময় বামেদের বিরুদ্ধে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের নেতৃত্বে লড়াই করত কংগ্রেস। এখন তাদের এমন অবস্থা হয়েছে যে সিপিআইএমের (Cpim) পতাকার তলায় গিয়ে আশ্রয় নিতে হয়েছে।

অভিষেক যখন দক্ষিণ 24 পরগনা জুড়ে প্রচার সভা করছেন, তখন দলীয় প্রার্থী শুভেন্দু অধিকারীর (Shubhendu Adhikari) সমর্থনে নন্দীগ্রামে রোড শো, জনসভা করেন বিজেপির (Bjp) কেন্দ্রীয় নেতা অমিত শাহ। সেই নিয়ে তৃণমূল সাংসদ বলেন, “করোনা-আমফানের সময় কোথায় ছিল বিজেপি? এখন দিল্লির নেতারা ডেইলি প্যাসেঞ্জারি করছেন”।

রাজ্যে উন্নয়নের স্বার্থে এবং জনকল্যাণমূলক প্রকল্পগুলো চালু রাখতে তৃণমূল প্রার্থীদের বিপুল ভোটে জয়ী করার ডাক দেন অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়। তিনি বলেন, দক্ষিণ 24 পরগনায় 31-0 করবে তৃণমূল। আর নির্বাচনের ফল বেরোলে বহিরাগতরা পালিয়ে যাবে।

Advt