শ্রেয়া ঘোষালের নামে প্রতারণার শিকার বাংলাদেশ দূতাবাস

ঘটনায় আঙুল উঠেছে ‘হিটমেকার্স প্রোডাকশন প্রাইভেট লিমিটেড’(Hitmakers Production Private Limited) নামক মুম্বই ভিত্তিক এক সংস্থার বিরুদ্ধে। ঘটনায় নাম জড়িয়েছে কলকাতার (Kolkata) এক সঙ্গীতশিল্পীরও।

ক্রমাগত সক্রিয় হচ্ছে নানা প্রতারণা চক্র আর যার শিকার হচ্ছেন একের পর এক। এবার প্রতারণার সঙ্গে নাম জড়াল বিখ্যাত সঙ্গীত শিল্পী শ্রেয়া ঘোষালের (Shreya Ghosal)। সূত্রের খবর, শ্রেয়া ঘোষালের (Shreya Ghosal) নামে ভুয়ো ই-মেল আইডি ও হোয়াটসঅ্যাপ অ্যাকাউন্ট খুলে কয়েক লক্ষ টাকা লোপাট করার অভিযোগ উঠল। ঘটনায় আঙুল উঠেছে ‘হিটমেকার্স প্রোডাকশন প্রাইভেট লিমিটেড’(Hitmakers Production Private Limited) নামক মুম্বই ভিত্তিক এক সংস্থার বিরুদ্ধে। ঘটনায় নাম জড়িয়েছে কলকাতার (Kolkata) এক সঙ্গীতশিল্পীরও।

ঘটনার সূত্রপাত গত জানুয়ারিতে।জানা যায় বাংলাদেশের এক অনুষ্ঠানে শ্রেয়া ঘোষালকে (Shreya Ghosal) দিয়ে গান গাওয়ানোর প্রতিশ্রুতি দেয় ‘হিটমেকার্স প্রোডাকশন্স প্রাইভেট লিমিটেড’(Hitmakers Production Private Limited) নামে মুম্বইয়ের একটি সংস্থা। সেই সংস্থার বিষয়ে বাংলাদেশ দূতাবাসকে (Bangladesh Embassy)নাকি জানিয়েছিলেন কলকাতার শিল্পী চিরন্তন বন্দ্যোপাধ্যায়(Chirantan Banerjee)। তিনি বাংলার সঙ্গীত ও সিনেমা জগতে পরিচিত মুখ। ২০০৮ সালে একটি রিয়েলিটি শো (Reality Show) থেকে তাঁর উত্থান। এরপর একাধিক সিনেমা,সিরিয়ালে গানের পাশাপাশি অভিনয়ও করেছেন। দূতাবাসের হয়ে বাংলাদেশের একাধিক গানের অনুষ্ঠানেও যোগ দিয়েছেন তিনি। এদিকে শ্রেয়া ঘোষালের সঙ্গে অনুষ্ঠানের চুক্তির জন্য অগ্রিম আট লক্ষ টাকা পাঠানো হয় উক্ত সংস্থার ডিরেক্টর কৃষ্ণ শর্মার ব্যাঙ্ক অ্যাকাউন্টে। এরপর শ্রেয়া ঘোষালের নামাঙ্কিত একটি ইমেল আইডি থেকে একটি মেল যায়। সেখানে শ্রেয়া নাকি ‘ধন্যবাদ’ জানিয়েছেন বলে দাবি বাংলাদেশ দূতাবাসের। সেই মতো সব আয়োজন করে রাখা হয়েছিল বলেই খবর। পরে অনুষ্ঠানের সময় যত এগিয়ে আসতে থাকে, শ্রেয়া ঘোষালের সঙ্গে যোগাযোগ করার চেষ্টা করা হলে বাংলাদেশ দূতাবাস বুঝতে পারে যে বিষয়টি পুরোটাই ভুয়ো।

ঈদের চাঁদ : মন্নতের বারান্দা থেকে শুভেচ্ছা বিনিময় শাহরুখের

এদিকে এই ঘটনার প্রেক্ষিতে কলকাতা পুলিশের প্রতারণা দমন শাখায় অভিযোগ জানিয়েছে বাংলাদেশ দূতাবাস। ঘটনার পর চিরন্তন বন্দ্যোপাধ্যায়কে লালবাজারে ডেকে নিয়ে গিয়ে জিজ্ঞাসাবাদ করা হলে তিনি জানান, তিনি নিজেও মুম্বইয়ের এই সংস্থার প্রতারণার শিকার। তিনি উলটে অভিযোগের আঙুল তুলেছেন প্রসেনজিৎ চক্রবর্তী (Prosenjit Chakraborty)ওরফে প্রিন্স নামের এক যুবকের বিরুদ্ধে। অভিযুক্ত প্রিন্স আপাতত পলাতক। মামলাটি আপাতত কলকাতা হাইকোর্টে বিচারাধীন রয়েছে। দুমাসের মধ্যে তদন্ত শেষ করার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে আদালতের পক্ষ থেকে।




Previous articleবাজারে এল LIC-র আইপিও, জেনে নিন গুরুত্বপূর্ণ কয়েকটি বিষয়
Next articleঅক্ষয় তৃতীয়ায় জ্ঞানমঞ্চে শ্রীস ক্রিয়েশনের মিলন উৎসব