তিন বছর পর অবশেষে মুক্তি পেলেন জেলবন্দি লালু

দীর্ঘ তিন বছর জেল বন্দী থাকার পর অবশেষে আদালতের নির্দেশে মুক্তি পেলেন পশুখাদ্য মামলায় দোষী লালু প্রসাদ যাদব(Lalu Prasad Yadav)। গত ১৭ এপ্রিল ঝাড়খন্ড হাইকোর্ট(Jharkhand High Court) থেকে জামিন পান লালু। তবে করোনা পরিস্থিতির(Corona situation) কারণে ১২ দিন পর অবশেষে জেল থেকে বেরোতে পারলেন তিনি।

পশুখাদ্য সংক্রান্ত একাধিক মামলায় দোষী সাব্যস্ত হওয়ার পর গত ১৯ মার্চ ২০১৮ থেকে সাজা খাটছিলেন বিহারের প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী লালু প্রসাদ যাদব। দীর্ঘদিন পর গত ১৭ এপ্রিল এই মামলায় লালুর জামিনের আবেদন মঞ্জুর করে ঝাড়খন্ড হাইকোর্ট। যদিও করোনা পরিস্থিতির কারণে জেল মুক্তির প্রয়োজনীয় সরকারি নিয়মাবলী সম্পন্ন করতে সময় লেগে যায় দীর্ঘ ১২ দিন। এরপর জামানত বন্ড পেশ করে গত শুক্রবার জেলের বাইরে বের হতে সক্ষম হন বিহারের প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী। বর্তমানে মেয়ে মিসার বাড়িতে রয়েছেন লালু। তবে জেল থেকে মুক্তি পেলেও আদালতের তরফে বেশ কিছু শর্ত দেওয়া হয়েছে পশুখাদ্য দুর্নীতি মামলার এই অপরাধীকে। জানিয়ে দেওয়া হয়েছে কোনভাবেই লালু তাঁর বাড়ির ঠিকানা ও ফোন নম্বর বদল করতে পারবেন না। পাশাপাশি তাঁর পাসপোর্ট আদালতের কাছে জমা থাকবে। বিনা অনুমতিতে বাইরে কোথাও যেতে পারবেন না তিনি।

আরও পড়ুন:মাধ্যমিক বাতিল করে ফর্মুলা ঘোষণা করুক রাজ্য: জয়িতা মৌলিকের কলম

উল্লেখ্য, পশুখাদ্য সম্পর্কিত দ্বিতীয় এক মামলায় লালু প্রসাদ যাদব আগেই জামানত পেয়ে গিয়েছিলেন। এরপর দুমকা কোষাগার ৩.১৩ কোটি টাকার তছরুপ মামলায় ৭ বছরের সাজা হয় লালুর। তবে জেলবন্দি থাকাকালীন অসুস্থ লালুর চিকিৎসা চলছিল এইমস হাসপাতালে। অবশেষে এই মামলায় জামিন পেয়ে জেল মুক্তি হল বিহারের প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রীর।

Advt